Health logo

ক্যান্সার ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে তিলের তেল

তিল তেলের একদিকে যেমন রয়েছে ওষধি গুণ, তেমনই পুষ্টি উপাদানেও ভরপুর। সুস্বাস্থ্যে ফ্ল্যাভোনয়েড, ফেনোলিক অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট, ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড, ডায়েটারি ফাইবার ও ভিটামিনে সমৃদ্ধ তিল তেলের গুণাগুণগুলি চলুন জেনে নেওয়া যাক-

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

রচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে তিল তেল। নিয়ন্ত্রণে রাখে সিস্টোলিক ও ডায়াস্টোলিক। সেইসঙ্গে বডি মাস ইনডেক্স (বিএমআই) কমায়।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ

তিল তেলে যে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান থাকে তা রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়া কমায়। হৃদস্পন্দন নিয়মিত রাখতে সাহায্য করে। ধমনীর মধ্যে দিয়ে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখে। রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। তিল তেলে ৩৫-৫০ শতাংশ লিনোলেয়িক অ্যাসিড থাকে, যা রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রেখে হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

ক্যান্সার প্রতিরোধ

প্রস্টেট, অন্ত্রাশয়, ফুসফুস, কোলন ও স্তন ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

যন্ত্রণায় উপশম

তিল তেলের অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট, অ্যান্টিপাইরেটিক ও অ্যানালজেসিক উপাদান যন্ত্রণার উপশম ঘটাতে সাহায্য করে।

সর্দি-কাশি সারাতে

তিল তেলের অ্যান্টি ভাইরাল গুণাগুণ আছে। যা ভাইরাস আক্রমণ থেকে শরীরকে রক্ষা করে। সর্দি-কাশি ও সাইনাসের চিকিত্সায় দারুণ উপকার দেয়। বন্ধ নাকে তিল তেল লাগালে আরাম পাওয়া যায়।

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)

হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর।
একটি বিশ্বস্ত অনলাইন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান।

মুঠোফোন : 01742057854 (সকাল দশটা থেকে বিকেল ৫টা)

ইমো/হোয়াটস অ্যাপ : 01762240650

শ্বেতীরোগ,  একজিমা, যৌনরোগ, পাইলস (ফিস্টুলা) ও ডায়াবেটিসের চিকিৎসক।

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসে ঔষধ পাঠানো হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *