জেনে নিন মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে প্রাকৃতিক উপাদান

0
637

লাইফস্টাইল ডেস্ক

মুখমণ্ডলের অবাঞ্ছিত লোম সৌন্দর্য ম্লান করে দেয়। অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে ব্যবহার করা যায় প্রাকৃতিক উপাদান।

পার্লারে গিয়ে আর কত! সাজসজ্জাবিষয়ক  লোম অপসারণের কয়েকটি পদ্ধতি দেওয়া হল, যা হাতের কাছে পাওয়া যায় এরকম উপাদান দিয়ে তৈরি করা যায়।

যা ব্যবহারে আপনার এ অনাকাঙ্ষিত সমস্যা কেটে যাবে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

লেবু ও চিনি: ২ টেবিল-চামচ চিনি ও সমপরিমাণ লেবুর রস আট থেকে নয় টেবিল-চামচ পানির সঙ্গে মিশিয়ে গরম করুন। মিশ্রণটি ফুটতে শুরু করলে তাপ বন্ধ করে ঠাণ্ডা করুন। একটি পরিষ্কার স্প্যাটুলা বা চ্যাপ্টা কাঠির সাহায্যে ত্বকের সমস্যাযুক্ত অংশে লাগান। ২০ থেকে ২৫ মিনিট অপেক্ষা করে ভেজা হাতে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মালিশ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

চিনি প্রাকৃতিক এক্সফলিয়েটর হিসেবে কাজ করে এবং কুসুম গরম চিনি ত্বকে না আটকে লোমের সঙ্গে এঁটে যায়। অন্যদিকে লেবু প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে কাজ করে। তাই ত্বকের রং উজ্জ্বল করতেও সাহায্য করে। নিয়ম করে ব্যবহারে মুখের ত্বকের লোম হালকা হতে থাকে।

লেবু ও মধু: ওয়াক্সিংয়ের জন্য ব্যবহৃত কেমিকল উপাদানের বিকল্প হতে পারে এই মিশ্রণ। ২ টেবিল-চামচ চিনি ও লেবুর রস, ১ টেবিল-চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে তিন মিনিট গরম করুন। মিশ্রণটি পাতলা করতে অল্প পরিমাণে পানি মিশিয়ে নিন।

মিশ্রণটি ঠাণ্ডা হলে ত্বকে অল্প পরিমাণে কর্নস্টার্চ লাগিয়ে তার উপর মিশ্রণটি লোমের বৃদ্ধির দিকে লাগিয়ে নিন। এবার ওয়াক্স স্ট্রিপ দিয়ে উল্টো দিকে টেনে তুলুন।

মধু ত্বকে আর্দ্রতা যোগাতে সাহায্য করে। তাই ত্বক যাদের শুষ্ক তাদের জন্য এটি বিশেষভাবে উপযোগী।

ওটমিল ও কলা: ২ টেবিল চামচ ওটমিল একটি পাকাকলার সঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে হাত ঘুরিয়ে লোম বৃদ্ধির উল্টা দিকে মালিশ করুন ১৫ মিনিট। ওটমিলে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকে পুষ্টি যোগায় ও আর্দ্রতা ধরে রাখে। ত্বকের লোম দূর করার পাশাপাশি ত্বকে দীপ্তি বাড়াবে।

আলু ও ডাল: ১ টেবিল-চামচ মধু, লেবুর রস এবং ৫ টেবিল-চামচ আলুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার আগের রাতে ভিজিয়ে রাখা মসুরডাল মিহি করে পেস্ট করে নিন। এবার সব উপাদান মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে হালকাভাবে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

এই পেস্ট ত্বকে শুকিয়ে গেলে তা অবাঞ্ছিত লোম তুলে আনতে সাহায্য করে। আলুর রস প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে কাজ করে। তাই ত্বকের কালচেভাব দূর করে এবং লোমও খানিকটা হালকা করতে সাহায্য করে।

যদি এ মিশ্রণে কাজ না হয় অথবা আপনি এটি তৈরি করে ব্যবহার করার অনুষঙ্গ না পান তাহলে যোগাযোগ করুন।

মেলাড্রাম লিকুইড ব্যবহার দুই মাস সেবন খুব সহজেই মুখের অনাকাঙ্ষিত লোম চিরতরে মুছে ফেলুন।

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মুহাম্মদ মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)

মুঠোফোন :  

+88 01777988889 (Imo-whatsApp)

+88 01762240650

+88 01834880825

( যোগাযোগ : সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ১টা এবং  ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা, নামাজের সময় ব্যতীত)

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
673 জন পড়েছেন