জীবনে প্রতিষ্ঠিত ও সফল হওয়ার গোপন কথা

0
52

ফিচার ডেস্ক
জীবনে সবাই প্রতিষ্ঠিত হতে চায়। সে জন্য কতরকমের পন্থাই না অবলম্বন করে মানুষ। আজ এমন গোপন পাঁচটি কথা জেনে রাখুন। যা প্রতিষ্ঠিত হতে আপনাকে সাহায্য করবে।

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস থেকে মুক্তির সহজ উপায়

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

• সম্পদ থেকেই অনর্থ জন্মায়। কিন্তু সম্পদই মানুষের মধ্যে লালসার জন্ম দেয়। লালসা শেষ পর্যন্ত বিপর্যয়কে ডেকে আনে। যত সম্পদই আহরণ করুন না কেন, তা অন্যের মধ্যে লোভ বা লালসার জন্ম দেবেই। তাই নিজের সম্পদের কথা কখনোই প্রকাশ্যে বলতে নেই। তা গোপন রাখাই ভালো।

• অপমানের খবর দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে। সামান্য অপমান তখন বহুগুণ হয়ে ফিরে আসে। তাই নিজের অপমানগুলোকে নিজের ভেতরে রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ।

• ভক্তি বিষয়টিও জনসমক্ষে বলে বেড়ানোর মতো নয়। কারণ ভক্তির মধ্যে নিহিত থাকে আত্মনিবেদন। তা প্রকাশ্যে এলে আত্ম-বিচ্ছিন্ন হয়। ভক্তির যাবতীয় মহিমা লুপ্ত হয়।

• নিজের একান্ত ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলোকে নিজের কাছেই রাখুন। অন্য লোক তাকে আপনার দুর্বলতা বলে মনে করতে পারে।

• দান সবসময়ই গোপন রাখা ভালো। কারণ দান জনসমক্ষে এলে দাতার মধ্যে আত্মম্ভরিতা দেখা দিতে পারে। দান তার মহিমা হারায়।

যৌন সমস্যার সমাধানে নাইট কিং কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান : 01777988889 মূল্য 1050/- টাকা, নাইট কিং গোল্ড 1350 টাকা।

জীবনে সফলতা পেতে ১২ টি বিষয় খুবই জরুরী

স্কুল কলেজের গণ্ডি পার হয়ে ইউনিভার্সিটি ভর্তি, দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে উন্নিত হওয়া। ২০ বছর বয়সের থেকেই ছেলে মেয়েরা নিজেদের গড়ে তোলার ব্যাপারটি বুঝতে শিখে থাকে। ভবিষ্যতের জন্য নিজেকে গড়ে নেওয়ার এটিই মোক্ষম সময়। এই সময়ে কিছু বিষয় হয়তো হাতে কলমে শিখিয়ে দেয়া হবে তাদেরকে। কিন্তু জীবনের বেশ কিছু শিক্ষা শিখে নিতে হবে নিজে থেকেই। সফলতা, উন্নতি এবং সঠিকভাবে জীবন যাপনের জন্য নিজেকে গড়ে নেওয়ার দীক্ষা কেউ শিখিয়ে দিতে পারে না। বুঝে নিতে হয় নিজ থেকেই।

১) জীবনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ সময় আবার পুনরায় ফিরে পাওয়া সম্ভব নয় একেবারেই। সুতরাং সময়গুলোকে গুরুত্ব দিলে পরবর্তীতে তা নিয়ে আর আফসোস থাকবে না।

২) সৌজন্যতাবোধ তখনই বেঁচে থাকবে যদি আপনি তা অন্য কারো প্রতি প্রদর্শন করেন।

৩) প্রেম-ভালোবাসা শুধুমাত্র সময় কাটানোর কোনো বিষয় নয়। এটি জীবনের বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার।

৪) আপনি নিজের জীবন এবং পৃথিবীটাকে যেভাবে দেখেন অন্য কারো পক্ষে তা দেখা বা ভাবা সম্ভব নয়। সুতরাং অন্য কারো কাছ থেকে নিজের মতো করে ভাবার আশা করবেন না।

৫) কোনো ব্যাপারে আশার হাল শক্ত করে ধরে রাখলে সে ব্যাপারটিতে সফলতা আসবেই।

৬) অনেক সময় একটি ভুল সিদ্ধান্তের কারণেও সঠিক পথে পরিচালিত হওয়া সম্ভব হয়।

৭) মানুষের চাহিদা থাকবেই এবং সময়ের সাথে সাথে তা বেড়েই চলবে। সব চাহিদা পূরণ হওয়া সম্ভব নয় একেবারেই।

৮) স্বাস্থ্যটাকেই সব চাইতে গুরুত্ব দেয়া উচিত। নতুবা যৌবনেই বার্ধক্য ভর করতে পারে।

৯) জীবন যাপন এবং ধারণের জন্য পানি ব্যতীত অন্যান্য সকল পানীয় না পান করলেও চলবে। বিশেষ করে মদ ও এনার্জি ড্রিংকসগুলো বাদ দিলে জীবনটা ভালোই যাবে।

১০) জীবনটা অনেক বেশি সুন্দর হবে যদি বর্তমানের সকল দিকে নজর দেয়া সম্ভব হয়। এতে করে ভবিষ্যতটাও আপনাআপনিই সঠিক হয়ে আসবে।

১১) যদি জীবনে সফলতা আনতে চান তবে অবশ্যই গণ্ডির বাইরে চিন্তা করা উচিত এবং সে হিসেবে নিজেকে তৈরি করে নেয়া উচিত।

১২) মানুষ পিছু কথা বলবেই এবং হিংসা বা নিন্দা করে চলবেই। তাই বোলে দমে থাকা বা নিজেকে গুটিয়ে নেয়ার কোনো অর্থ হয় না। এভাবেই এগিয়ে যেতে হবে জীবনে।

আরো পড়ুন : যৌন সমস্যার সমাধানে করণীয়

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
999 জন পড়েছেন