ফরিদগঞ্জ চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি পালিত

0
28

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
ফরিদগঞ্জ উপজেলায় নানা কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে ঐতিহ্যবাহী চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন হয়েছে। শুক্রবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সংগীত পরিবেশন এবং বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভুঁইয়া।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

দিনব্যাপি অনুষ্ঠানের মূলপর্ব আলোচনা সভা, অতিথি, প্রাক্তন শিক্ষক ও কৃতি ছাত্রদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও প্রাক্তন ছাত্র মো. সফিকুর রহমান পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের ৮নং সেক্টর কমান্ডার লে. কর্নেল (অব.) আবু ওসমান চৌধুরী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. হাবিবুর রহমান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ. এইচ. এম মাহফুজুর হমান।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান রানা, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ শাহ্ মো. মকবুল আহমেদ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান পাটওয়ারী প্রমূখ। এছাড়া ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চক্রবর্তীসহ বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ডাঃ মো. হারুনুর রশিদ সাগরের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী।

শর্তবর্ষ এ অনুষ্ঠানে প্রবীণ ও প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক নাছির উদ্দিন পাটওয়ারী ও হরি পদ দত্ত উপস্থিত হওয়ায় তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং তাদেরকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। প্রবীণ ও নবীনদের এ মিলন মেলায় এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। স্মৃতি চারণের মাধ্যমে তারা শৈশবের অনেক ছোট বড় গল্প নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি লে. কর্নেল (অব.) আবু ওসমান চৌধুরী বলেন, এ বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্র দেশের গুরুত্বপূর্ন পদে নেতৃত্ব দিয়েছেন। স্বাধীনতা যুদ্ধেও তাদের অনেক ভুঁমিকা ছিলো। সরকারি উচ্চ পর্যায়ে এখনো অনেকে কাজ করছেন। এসব কৃতি সন্তানদের বর্তমানে অবস্থানের আসার মধ্যে প্রত্যেকেরই নিজেদের স্বপ্ন লালন করেছেন। বর্তমান প্রজন্মকেও মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার বিশ^াস লালন করে উন্নত দেশ গঠনে নিজেদেরকে তৈরী করতে হবে।

এর আগে উদ্বোধকের বক্তব্যে ড.শামছুল হক ভূঁইয়া এমপি বলেন, আজ বাঙালী জাতিকে কারো কাছে হাত পাততে হয় না । এখন আর আমরা কোন গরীব দেশ নই । তিনি বলেন, আমরা এখন মহাকাশেও স্থান করে নিয়েছি । এখন আর বাংলাদেশকে কেউ ছোট করে দেখার সুযোগ নেই । এখন অর্থের অভাবে কোন শিক্ষার্থীকে পড়া বন্ধ করতে হয় না । সরকারই তাদের বিনামূল্যে বই দেয়াসহ উপবৃত্তির ব্যবস্থা করছে । তাই তোমরা যারা বর্তমান প্রজন্ম তোমাদের স্বপ্ন দেখতে কোন বাধা নেই । আমরা আশা করি তোমরা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবে ।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
459 জন পড়েছেন