সীতাকুণ্ডে প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে দুই কিশোরীকে ‘হত্যা’ করে বখাটে আবুল

0
30

জেলা প্রতিনিধি চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ১৯ মে ২০১৮

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বাড়ি থেকে দুই কিশোরীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় আবুল হোসেন (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে সে পুলিশকে জানিয়েছে, ‘প্রেমের প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে আবুল হোসেন ও তার সহযোগীরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।’

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01777988889 অথবা
01762240650
মূল্য : নাইট কিং- ১০৫০/- টাকা, নাইট কিং গোল্ড ১৩৫০/- টাকা।
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সীতাকুণ্ড সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শম্পা রাণী সাহা বলেন, ‘আবুল হোসেন পুলিশকে জানিয়েছে, সুকলতিকে কিছুদিন আগে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হয়েছিল সে।

এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে সালিশ হয় এবং তাকে ভর্ৎসনাও করা হয়। অপমানের প্রতিশোধ নিতে সে সুকলতিকে হত্যা করতে যায়। ঘটনাটি ছবি রাণী দেখে ফেলায় তাকেও হত্যা করা হয়। হত্যা করার পর দুজনকেই দড়িতে ঝুলিয়ে রাখে।’

এর আগে গতকাল রাত ৮টার দিকে সুকলতি ত্রিপুরা (১৬) ও ছবি রাণী ত্রিপুরা (১৩) নামে ওই দুই বান্ধবীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মরদেহ উদ্ধারের সময় গলায় দড়ি লাগানো ছিল। সুকলতি ওই এলাকার পুলিন কুমার ত্রিপুরার মেয়ে। অন্যদিকে সুমন ত্রিপুরার মেয়ে হলো ছবি রাণী।

স্থানীয়রা জানান, ঘটনাস্থল ওই সীতাকুণ্ডের জঙ্গল মহাদেবপুর পাহাড়ের ত্রিপুরা পাড়াটি সীতাকুণ্ড থানা থেকে দেড় কিলোমিটার দূরে পাহাড়ের চূড়ায়। শুক্রবার সকালে পাড়ার বাসিন্দারা প্রতিদিনের মতো পাহাড়ে কাজে চলে যায়। দুপুর থেকেই বৃষ্টি হওয়ায় ঘটনাটি ঘটার সময় স্থানীয় বাসিন্দাদের নজরে আসেনি।

এদিকে আজ সকালে নিহত ছবি রাণী ত্রিপুরার বাবা সুমন ত্রিপুরা বাদী হয়ে সীতাকুণ্ড থানায় মামলা করেন। মামলায় দুই কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে আবুল হোসেনকে প্রধান আসামি করা হয়।

সুকলতির বাবা পুলিন কুমার ত্রিপুরা অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় বখাটে আবুল হোসেন দুই মাস ধরে তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করত। আবুলকে পাড়ায় ঢুকতে না দেয়ার জন্য এক মাস আগে সভাও হয়। শুক্রবার ওই ছেলেকে পাড়ার একটি ঘরে দেখতে পান। ওই ছেলেই তার মেয়েকে হত্যা করেছে।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
274 জন পড়েছেন