প্রতারণার অভিযোগে চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিন গ্রেফতার

0
42

আপডেট: ০৬:২৪ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮

আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ ও তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। মঙ্গলবার তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে গ্রেফতারের দুদিন পর বৃহস্পতিবার বিকেলে সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি-মিডিয়া) শারমিন জাহান এক বিবৃতিতে গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

 

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

তিনি বলেন, অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় গত ২১ মে রাজধানীর মিরপুর থানায় করা একটি মামলায় (মামলা নম্বর-৪৩) তাকে কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর থেকে গ্রেফতার করে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগ।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘২০১৩ সালে মো. মিজানুর রহমান খানের সঙ্গে চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিনের ফেসবুকে পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্রে সাদিয়া আফরিন মিজানুর রহমানকে বলেন, তার স্বামী বিদ্যুৎকুমার সাহা ওরফে সৌরভ সিনেমা প্রযোজনা করেন।

মিজানুর রহমানকে সিনেমায় অর্থ বিনিয়োগে লাভবান হওয়ার প্রলোভন দেখান। তাদের বিশ্বাস করে মিজানুর রহমান তার নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, বিকাশ ও পোস্ট অফিসের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে সর্বমোট দুই কোটি পঞ্চাশ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেন।

কিন্তু বিনিয়োগের বেশকিছু দিন পার হয়ে যাওয়ার পর তাদের বারবার তাগাদা দিলেও তারা সিনেমা না বানিয়ে টালবাহানা করেন। এরপর টাকা ফেরত চাইলে চিত্রনায়িকা সাদিয়া আফরিন জানিয়ে দেন যে, তিনি টাকা দিতে পারবেন না।’

টাকা না দেয়ার কথা জানানোর পর মিরপুর থানায় মামলা করেন মিজানুর রহমান।

মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় সিআইডি। এরপর সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহর অভিযানে সাদিয়া আফরিন ও তার স্বামী বিদ্যুৎকুমার সাহাকে কিশোরগঞ্জ জেলার বাজিতপুর থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
534 জন পড়েছেন