হাইমচরে অর্থের অভাবে ৪০ বছর ধরে টিউমারের সাথে যুদ্ধ করা আনামিয়ার অপারেশন হচ্ছে না

0
16

মানবতার সেবায় এগিয়ে আসার আহ্বান
হাইমচরে অর্থের অভাবে ৪০ বছর ধরে টিউমারের সাথে যুদ্ধ করা আনামিয়ার অপারেশন হচ্ছে না

সাহেদ হোসেন দিপু, হাইমচর :
চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার আলগী দক্ষিন ইউনিয়নের পূর্বচর কৃষ্ণপুর গ্রামের ৪০ বছর ধরে টিউমারের সাথে যুদ্ধ করা সেই আনামিয়া দেওয়ানের অপারেশন হচ্ছো না অর্থের অভাবে । অপারেশন করাতে না পারায় তাঁর ঘাড়ের উপর ঘাপটি মেরে বসে থাকা টিউমারটি দিন দিন বড় হতে যাচ্ছে। অভাব অনটন অসহায়ত্ব দেখে মানবতার সেবায় এগিয়ে এসে তার পাশে দাড়ান দূর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন পাটওয়ারী। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আনামিয়ার অসহায়ত্ব জীবনের কাহিনী তুলে ধরে সমাজের ধর্নাঢ্য ব্যক্তিদের কাছে সহযোগীতার মাধ্যমে মানব সেবায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এসংক্রান্ত খবর চাঁদপুরের স্থানীয় পত্রিকাগুলোসহ জাতীয় পত্রিকাগুলোতেও প্রকাশ হয়েছিল। সে আহ্বানে সাড়া দিয়ের্ আনামিয়া দেওয়ানের বড় মেয়ের বিকাশ নাম্বারে (০১৭৩৯০৩৫১৬০) মাত্র ৮ হাজার টাকার অনুদান এসেছে। এরই মধ্যে নুরুল আমিন পাটওয়ারী আনামিয়াকে ঢাকায় নিয়ে সকল পরিক্ষা নিরিক্ষা করেন। আগামী সপ্তায় তার মরন ব্যাধী টিউমারের অপারেশন হওয়ার কথা ছিল বলে জানা গেছে। তার চিকিৎসা সেবায় সাহায্যকারি নুরুল আমিন পাটওয়ারী জানান, টাকার অভাবে আনামিয়াকে ৪০ বছর ধরে মরন ব্যাধী টিউমারের সাথে যুদ্ধ করে চলছে তার অসহায়ত্ব জীবন। তার অসহায়ত্ব জীবনের বৃত্তান্ত তুলে ধরে আমি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সকলের সহযোগীতা চেয়েছি। অনেকে সহযোগীতার আশ্বাস দিলেও তার মেয়ের বিকাশে মাত্র ৮ হাজার টাকার অনুদান দিয়েছে।

তার অপারেশন করতে প্রায় লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন। আমি আমার পরিচিতজনদের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা সংগ্রহ করেছি। আনামিয়ার টিউমারের অপারেশন করতে আরো প্রায় ৭০ হাজার টাকার প্রয়োজন। কিন্তু কোন সাহায্য পাচ্ছি না। টাকা না থাকায় তার অপারেশনের কয়েকটা তারিখ পিছানো হয়েছে। আমি ব্যক্তিগত ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছি সাহায্যের মাধ্যমে টাকা পয়সা না পেলেও ধার দেনা করে আগামী সপ্তাহে আনামিয়া দেওয়ানের টিউমারের অপারেশ করানোর জন্য ঢাকায় নিয়ে যাবো। এর মধ্যে যদি কেউ মানব সেবায় এগিয়ে এসে সহযোগীতার হাত বাড়ায় তাহলে এ অসহায় লোকটি তার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে পাবে।

অসুস্থ আনামিয়া আবেগ আপ্লুত কন্ঠে জানান, আমি দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে মরন ব্যাধী টিউমারের সাথে যুদ্ধ করে বেচে আছি। আমার চিকিৎসার জন্য নুরুল আমিন মাষ্টার এগিয়ে এসেছে। তার সাথে যদি সমাজের বিত্তবানরা আমার চিকিৎসার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তাহলে আমি সুস্থ্য জীবন ফিরে পাবো।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
329 জন পড়েছেন