ফরিদগঞ্জে দু’সহোদরের দীর্ঘদিনের বিরোধ পুলিশের মধ্যস্থতায় মিমাংশা

0
0

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
ফরিদগঞ্জ উপজেলার সাহাপুর গ্রামের খলিলুর রহমান শেখ ও আ: জলিল শেখ নামের দুই ভাইয়ের মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট দীর্ঘদিনের বিরোধ মিমাংশা করে আরেকটি নজির রাখলো ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ। শুক্রবার রাতে ফরিদগঞ্জ থানায় এই ঘটনা ঘটে।

মিমাংসাকালে শালিশী বৈঠকে উপস্থিত থাকা টিপু সুলতান সরকার জানান, উপজেলার সাহাপুর গ্রামের খলিলুর রহমান শেখ ও আ: জলিল শেখ দুই ভাইয়ের মধ্যে মাত্র ৬শতক জমি নিয়ে সর্বশেষ বিরোধ সৃৃষ্টি হয়। এর আগে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ৪/৫ বছর ধরে বড় ধরনের বিভেদ ছিল উভয়ের মধ্যে। এনিয়ে স্থানীয় ভাবে অন্তত ২০/২৫ দফা বৈঠক হয়। কিন্তু কোন কিছুতেই সমাধান হচ্ছিল না।

এরই মধ্যে খলিল শেখ তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে চাঁদপুর পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ দায়ের করে গত ১৪ মে। পুলিশ সুপার বিষয়টি নিঃষ্পতিার জন্য ফরিদগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) রাজীব কুমার দাশের কাছে তা প্রেরণ করে। তিনি থানার অফিসার ইন চার্জ শাহ আলমের সহযোগিতা নিয়ে থানার গোল ঘরে পর পর চার দফা শালিশী বৈঠকে বসেন। অবশেষে ২৯ জুন শুক্রবার বিকাল থেকে শুরু করে রাত অবধি চলা শালিশী বৈঠক শেষে সমাধানের পথ খুঁেজ পায় শালিশীরা।

সুন্দর সমাধান পেয়ে অতীতের সকল বিরোধ ভুলে গিয়ে দুই সহোদর একে অপরকে জড়িয়ে ধরেন। এসময় তারা বলেন, এক সময় আমরা দুই ভাই একসাথে আম বাগানে আম পাড়া ,এক সাথে সাঁতার কাটা, নারকেল গাছে উঠে ডাব পাড়া, সাঁঝ বেলাতে মায়ের বকুণি খাওয়া আমাদের দুই ভাইয়ের জন্য প্রতিদিনের অভ্যাসে পরিনত হয়েছিলো। সেই দুই ভাই জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে একে অপরের মুখ দেখেনি। অবশেষে থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) এর সহযোগিতায় আমরা ভুল শুধরে দুই ভাই এক হয়ে গেলাম।

ফরিদগঞ্জ থানার ওসি(তদন্ত) রাজীব কুমার দাশ জানান, পুলিশ এখন বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে দাড়াঁতে চেষ্টা করছে। সেই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের একটি একটি প্রচেষ্টা।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
8 জন পড়েছেন