চাঁদপুরে ফেন্সি হত্যাকান্ডে জুলেখার ২ দিনের রিমান্ড

0
30

আপডেট : ১১ জুলাই ২০১৮ খ্রি.

চাঁদপুর শহরের ষোলঘর পাকা মসজিদ এলাকার আলোচিত হত্যাকাণ্ড অধ্যাপিকা শাহিন সুলতানা ফেন্সির হত্যাকান্ডের আটক সন্দেহভাজন সতিন জুলেখা বেগমকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে বিজ্ঞ আদালত।

http://picasion.com/

বিজ্ঞ বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সৈয়দ কায়সার মোশাররফ ইউসুফ এর আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর মোঃ মহিউদ্দিন ও জেলা সিআইডি পুলিশ যৌথভাবে ৩ দিন পূর্বে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এতে বুধবার শুনানী অনুষ্ঠিত হলে বিজ্ঞ বিচারক ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

উল্লেখ্য গত ৪ জুন ষোলঘর পাকা মসজিদ এলাকার অ্যাডঃ জহিরুল ইসলামের বাসায় তার প্রথমা স্ত্রী ফরিদগঞ্জ গল্লাক আদর্শ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শাহিন সুলতানা ফেন্সি নির্মমভাবে খুন হয়। খুনের ঘটনার পর পুলিশ বাসা থেকে প্রথমে অ্যাডঃ জহিরুল ইসলামকে আটক করে। পরে তার দ্বিতীয় স্ত্রী জুলেখা বেগমকে শহরের নাজির পাড়া থেকে আটক করা হয়। এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে জুলেখা বেগমের ভগ্নিপতি ওয়াচকুরুনিকে আটক করা হয়।

এই হত্যাকাণ্ডে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইন্সপেক্টর ও মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা জুলেখা বেগমকে ফেন্সি হত্যাকান্ডের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। বিজ্ঞ বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সৈয়দ কায়সার মোশাররফ ইউসুফ ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সকাল ১০টায় চাঁদপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে পুলিশ ও কারারক্ষীদের পাহারায় ফেন্সি হত্যাকান্ডের সন্দেহভাজন আসামী জুলেখা বেগমকে আদালতে নিয়ে আসা হয়। এসময় জুলেখার ঔরষজাত শিশু সন্তানরা পরিবারের অন্যান্য লোকজনের সাথে আদালতে উপস্থিত ছিলেন। জুলেখা বেগম কান্নাজড়িতভাবে তার শিশু কন্যাটিকে নিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। রিমান্ডের শুনানী শেষে জুলেখা বেগমকে পুনরায় আদালত থেকে হাজতে নিয়ে যাওয়ার সময় আবারও শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
477 জন পড়েছেন
http://picasion.com/