দেবকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে অনাস্থা

0
16

শাহরাস্তি ব্যুরোঃ

http://picasion.com/

শাহরাস্তিতে বিভিন্ন অভিযোগে দক্ষিন দেবকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে অনাস্থা দিয়েছেন উক্ত কমিটির সাত সদস্য। গত সোমবার দুপুর ১২টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসারকে অনাস্থাপত্র প্রদানের বিষয়টি অবহিত করেন অনাস্থাকারীগন।

সংশ্লিষ্ট ও নথিপত্র সূত্রে জানাযায়, শাহরাস্তি উপজেলার মেহার দক্ষিন ইউনিয়নের দক্ষিন দেবকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ১৫ জুলাই রোববার এক জরুরী সভার মাধ্যমে সকল আলোচনার পর উক্ত কমিটির ৭ সদস্য সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতিকে অনাস্থা প্রদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা খাজা মাঈনউদ্দিন ও মোঃ জহিরুল ইসলাম। অনাস্থা দানকারিরা হলেন, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য তৌহিদুল হোসেন, আলহাজ্ব মোঃ আবু ইাউসুফ মোল্লা, আলহাজ্ব ইমাম হোসেন মেম্বার, আবুল বাশার মাষ্টার, পারুল বেগম, সাজেদা বেগম ও গুলশান আরা বেগম। এ ব্যাপারে অনাস্থাকারিদের পক্ষে ইমাম হোসেন মেম্বার বলেন, আমি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাতা ও ভূমিদাতা পরিবারের সদস্য এবং প্রতিষ্ঠাকালিন শিক্ষক। বর্তমানে স্থানীয় ইউপি সদস্যের দায়িত্ব পালন করছি। বিভিন্ন ভাবে হাত ঘুরে আমাদের অজান্তে একটি কমিটি অনুমোদিত হয়। যে কমিটির সভাপতি অযোগ্য, অদক্ষ এবং অসামজিক বিভিন্ন কাজের সাথে জড়িত এক ব্যাক্তি। একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি যদি অশিক্ষিত, মূর্খ হয় তাহলে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবস্থা কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা ভাবা মুশকিল। অচিরেই এই অযোগ্য সভাপতির অপসারণ দাবি করেন তিনি। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মোরশেদ আলম বলেন, আমি সভাপতি হতে চাইনি। আজ যারা আমার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রদান করেছেন তারাই আমাকে সভাপতি বানিয়েছেন। যেহেতু কমিটি অনুমোদন হয়েছে সেহেতু আসুন সবাই মিলে বিদ্যালয়ের সার্থে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি। বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, কমিটি অনুমোদনের পর থেকে একটি মিটিংও হয়নি। মিটিং কল করলে অনেকেই অনুপস্থিত থাকতেন। কমিটির কোন্দলের কারনে বিদ্যালয়ের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড ব্যহত হচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন উন্নয়ন ও মেরামত করনের লক্ষে সরকারি দুইটি তহবিল থেকে ১লাখ ৪০হাজার বরাদ্ধ দেওয়া হয় ।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
348 জন পড়েছেন
http://picasion.com/