যে কারণে আতঙ্কে যমজ দুই বোন

0
38

আপডেট: ০৮:১৪ পিএম, ০৪ জুলাই ২০১৮

জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর :
ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে অপহরণ আতঙ্কে দিন কাটছে স্কুল পড়ূয়া যমজ দুই বোনের। বখাটেদের উত্ত্যক্তের কারণে দুই বোনের স্কুলে যাওয়াও বন্ধ হয়ে গেছে। বখাটেদের হাত থেকে বাঁচতে বুধবার দুপুরে যমজ দুই বোন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

অপহরণ আতঙ্কে থাকা দুই বোন চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেক ইউনিয়নের চরহাজীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী কাজল (১৩) ও রেখা (১৩)। তারা চরসুলতানপুর গ্রামের শহিদুল ইসলাম মন্ডলের জমজ দুই মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গাজীরটেক ইউনিয়নের বেপারী ডাঙ্গী গ্রামের বখাটে মিজান (২৫), তামেল (২২), আকমাল (২১), রাজু (২২), রনি (২০), রাশেদ (২১) ইমরান বেপারী (২৩) ও আইয়ুব খালাসী (২৫) কিছুদিন যাবৎ ওই দুই যমজ বোনকে স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। দুদিন আগে কাজল তার ভাইয়ের মোটরসাইকেলে চড়ে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে বখাটেরা তাকে টেনে-হিঁচরে অপহরণ করার চেষ্টা করে। এ সময় কাজলের ভাই রাকিব হোসেন (২৪) বাধা দিলে তাকে পিটিয়ে আহত করে বখাটেরা। রাকিব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনার জের ধরে বুধবার বেলা ১১টার দিকে ওই বখাটের দল জমজ দুই বোনের বাড়িতে এসে হামলা চালায়। তারা যমজ দুই বোনের চাচাতো ভাই বাসার মন্ডল (৪২) ও তুষার মন্ডলকে (২৪) হাতুড়ি পেটা করে গুরুতর আহত করে। তাদেরকেও চরভদ্রাসন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় বাড়িতে থাকা যমজ দুই বোন কাজল ও রেখা পালিয়ে গিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দেয়।

কাজল ও রেখা জানায়, গত ডিসেম্বর থেকে ওই বখাটে গ্রুপ তাদের পিছু লেগেছে। তারা স্কুলে ও প্রাইভেট পড়তে যাওয়া আসার সময় প্রতিনিয়ত কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছে। কিছুদিন আগে টিফিন আওয়ারে বিদ্যালয়ের পাশ থেকে তাদের কু-প্রস্তাব দিয়ে হাত ধরে টানাটানি করে ব্যর্থ হয় বখাটেরা। গত শনিবার স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার জন্য ভাইয়ের মোটরসাইকেলে উঠলে বখাটেরা ভাইয়ের সামনে মোটরসাইকেল থেকে টেনে-হিঁচড়ে নামিয়ে অপহরণের চেষ্টা চালায়। এ সময় ভাই বাধা দিতে গেলে বখাটেরা তাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি ও লাথি মেরে গুরুতর আহত করে।

জমজ দুই বোন আরও জানায়, স্থানীয় মাতব্বররা বিষয়টি নিয়ে আপস মীমাংসার কথা বলে আইনের আশ্রয় নিতে দেয়নি। বখাটেদের ভয়ে তারা স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে বাড়িতেই ছিল। বুধবার তাদের বাড়িতে হামলার পর তারা বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে ইউএনও’র কাছে অভিযোগ দিয়েছে।

চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কামরুন নাহার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত ওই এলাকায় অভিযান চালানো হবে। বখাটেদের পেলেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেয়া হবে।

গাজীরটেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইয়াকুব আলী জানান, ওই নেশাখোর বখাটে গ্রুপটি এলাকায় অতিরিক্ত অন্যায় করে চলেছে। প্রকাশ্যে স্কুলছাত্রী অপহরণ চেষ্টার পরও তারা অস্ত্র নিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়ায়। স্থানীয় কোনো মুরব্বির কথাও তারা মানে না। এখন আইনের শাসন ছাড়া আর কোনো পথ নেই।

এ ব্যাপারে চরভদ্রাসন থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাম প্রসাদ ভক্ত বলেন, ওই দুই ছাত্রীর বাড়িতে বখাটেদের হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বখাটেরা গা ঢাকা দিয়েছে। তাদের আটকে অভিযান চলছে।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
411 জন পড়েছেন