নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয়করণ না হওয়ায় হতাশা

0
18

শাহরাস্তির নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয়করণ না হওয়ায় শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকমহল হতাশ

মো. কামরুজ্জামান সেন্টু :
চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়টি জাতীয়করণ না হওয়ায় এলাকাবাসী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকমহল হতাশ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কান্তি দত্ত চাঁদপুর রিপোর্টকে জানান, আমাদের স্কুল উপজেলার শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম। লেখাপড়া, খেলাধূলাসহ বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠানে আমাদের স্কুলটি প্রধান ভূমিকা রেখে আসছি। ১৯৫৬ সালে এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে শিক্ষার গুণগত মান বজায় রেখে অসাম্প্রদায়িক ও অহিংস ধ্যান ধারণা নিয়ে আত্ম-সুনামের সহিত এলাকায় শিক্ষার আলো বিস্তার করে আসছি।

তিনি আরও বলেন, এ বিদ্যালয়ের সন্নিকটে উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা, সদর হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিস, ব্যাংক বীমাসহ সরকারী গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান গুলো অবস্থিত। উপজেলার চারপাশ থেকেই বিদ্যালয়টির যোগাযোগ ব্যবস্থা সর্বোত্তম। বিদ্যালয়ের সার্বিক দিক বিবেচনায় ১৯৮০ সালে পাইলট প্রকল্পভূক্ত এবং ২০০৯ সালে মডেল প্রকল্পভূক্ত হয়। বিদ্যালয়ে ভোকেশনাল, জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রতিবছরই সন্তোষজনক। বিদ্যালয়টিতে বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার কেন্দ্র বিদ্যমান। বিদ্যালয়টিতে যথাযথ ভাবে সকল জাতীয় দিবস এবং আন্তর্জাতিক দিবস সমূহ পালন করা হয়। এতে প্রশাসন কর্তৃক সব সময় বিদ্যালয়টিকে কর্মসূচী পালনের প্রধান ভ্যানু হিসেবে ব্যবহার করা হয়। সহ পাঠক্রমিক কার্যাবলীতে উপজেলা, জেলা, এমনকি জাতীয় পর্যায়েও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখে আসছে। আমরা সরকারের ডিজিটাল কার্যক্রমের উপর জেলা পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছি।

তিনি বলেন, চাঁদপুর জেলায় জাতীয়করণকৃত বিদ্যালয় সমূহের মধ্যে ৪টি প্রতিষ্ঠানই মডেল প্রকল্পভূক্ত ব্যতিক্রম শুধু এ উপজেলায়। জাতীয়করণে উপজেলা প্রশাসনের প্রেরিত তালিকায় প্রত্যেক বারই এক নাম্বারে নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম প্রেরণ করা হয়। অতি দুঃখের বিষয় শেষ পর্যন্ত এ বিদ্যালয়টিকে জাতীয়করণ করা হয়নি এতে আমরা হতাশ ও মর্মাহত।

বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থী নিশাত তাছনিম জানান, আমাদের বিদ্যালয়টি উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত হওয়ার পরও কেন জাতীকরণ হয়নি তা জানি না তবে আমরা খুব কষ্ট পেয়েছি। সরকারি বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করার ইচ্ছে আমাদের পূরণ হলো না।

নিজমেহার গ্রামের মোঃ আতিক উল্লাহ জানান, নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়টি জাতীয়করণ হওয়ার অন্যতম দাবিদার। আমরা হতাশ হয়েছি কিন্ত কি কারণে এ বিদ্যালয়টিকে জাতীয়করণ করা হয়নি তা আমাদের জানা নেই। আমরা এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
166 জন পড়েছেন