ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, মাদরাসা শিক্ষক গ্রেফতার

0
34

প্রকাশিত: ০৬:৫৬ পিএম, ০৭ আগস্ট ২০১৮

পটুয়াখালীর গলাচিপায় তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক মো. খলিলুর রহমান মৃধা ওরফে খলিল মাস্টারকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
http://picasion.com/

মঙ্গলবার গলাচিপা উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক (ভারপ্রাপ্ত) মো. আশিকুর রহমানের আদালতে আসামিকে হাজির করলে বিচারক তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় পৌর শহরের ৬নং ওয়ার্ডের ভাড়া বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার খলিল মাস্টার উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের নলুয়াবাগী গ্রামের মৃত মতলেব মৃধার ছেলে ও উত্তর মাছুয়াখালী হানিফি দাখিল মাদরাসার সামাজিক বিজ্ঞানের শিক্ষক।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যায় প্রতিদিনের ন্যায় খলিল মাস্টারের ভাড়াটে বাসায় ১০ বছর বয়সী ওই ছাত্রী চারজন সহপাঠির সঙ্গে প্রাইভেট পড়তে যায়। পড়ানো শেষে খলিল মাস্টার চার সহপাঠিকে পাশের কক্ষে ঘুমানোর জন্য রেখে বাইরে থেকে দরজা আটকে দেয়। সামনের কক্ষে খলিল মাস্টার ওই শিশুটিকে একা রেখে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় শিশুটি চিৎকার করলে পাশের কক্ষ থেকে সহপাঠিরাও চিৎকার করে। অবস্থা বেগতিক বুঝতে পেরে খলিল মাস্টার পাশের কক্ষের ছাত্রীদের ছেড়ে দেয়। ছাত্রীরা বাইরে এসে আবারও চিৎকার করলে অভিভাবকসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে খলিল মাস্টারকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ওই শিশু ছাত্রীর মা বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় খলিল মাস্টারকে একমাত্র আসামি করে থানায় মামলা করেন। আজ আদালত ওই শিশুটির ফৌজদারী আইনের ২২ ধারায় জবানবন্দী গ্রহণ করেছেন।

এ বিষয়ে গলাচিপা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ হোসেন বলেন, আদালতে শিশুটি জবানবন্দী দিয়েছে। আদালতের নির্দেশে আসামিকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
368 জন পড়েছেন
http://picasion.com/