ফরিদগঞ্জে সিকি কিলোমিটার রাস্তার জন্যে হাজারো মানুষের দুর্ভোগ

0
28

তিন এমপি ও দুই মেয়রের প্রতিশ্রুতির পরও আলোর মুখ দেখেনি
ফরিদগঞ্জে সিকি কিলোমিটার রাস্তার জন্যে হাজারো মানুষের দুর্ভোগ

আনিছুর রহমান সুজন, ফরিদগঞ্জ থেকে :
দুই পাশের রাস্তা পাকা। মাঝখানের সিকি কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা। আর সামান্য এ রাস্তা টুকুর জন্য দুর্ভোগ পোহাচ্ছে হাজারো মানুষ। অথচ এ রাস্তাটি পাকা করণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বর্তমানসহ সাবেক তিন এমপি ও বর্তমানসহ দুই মেয়র। জনপ্রতিনিধির বদল হলেও বদল হয়নি রাস্তাটির ভাগ্যের। ফরিদগঞ্জ উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রের অতীব গুরুত্বপূর্ণ চুতরা-গাব্দেরগাঁও সড়কের সিকি কিলো সড়কের চিত্র এটি। অভিযোগ রয়েছে, বিগত সময়ে তৎকালীন এমপি ও মেয়রের দ্বন্ধের কারণে বন্ধ হয়ে যায় রাস্তাটির পাকা করনের কাজ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

চাঁদপুর-লক্ষীপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের ফরিদগঞ্জ সদরের ব্র্যাক(চতুরা) অফিসের উত্তর পাশ দিয়ে পূর্বদিকে চলে যাওয়া ব্যস্ততম সড়কটি মিলিত হয়েছে ১৫নং রূপসা উত্তর ইউনিয়নের পাকা সড়কে। এ সড়কটির উপর নির্ভরশীল গাব্দেরগাঁও, বড়ালী, বদরপুর, বদিউজ্জামাপুর এবং রুস্তমপুরের কিছু অংশের প্রায় ৫ সহ¯্রাধিক মানুষ। দূর গ্রামের লোকজন উপজেলা সদরে আসতে সময় বাঁচানোর জন্য এ রাস্তাটি ব্যবহার করছে। অথচ নিয়তির কি নির্মম পরিহাস। সময়ের দাবী এবং ফরিদগঞ্জ পৌরসভার বর্তমান এবং বিগত মেয়রের প্রতিশ্রুতির পর প্রতিশ্রুতি গেলেও আলোর মুখ দেখেনি সড়কটি। সড়কটি থেকে উপজেলা সদরের দূরত্ব প্রায় দুই কিলোমিটার। এত কাছাকছি হওয়া সত্ত্বে প্রশাসনের কাছে রাস্তাটির গুরুত্ব নেই।

গ্রীষ্ম এবং বর্ষাসহ সারা বছরেই রাস্তাটি ব্যবহারের অনুপোযোগী থাকে। গরমে এত বেশি বালি ও বর্ষায় কাঁদার মাটির কারণে গাড়ি চলাতো দূরের কথা পায়ে হেটে চলাও অসম্ভব হয়ে পড়ে।

বড়ালী-গাব্দের গাঁও মিলে ‘বাঁশতলা’ এবং গাব্দেরগাঁও-বদরপুর মিলে ‘ভোট স্কুল’ এলাকার ছোট-খাটো দু’টি বাজার। এখানকার ব্যবসায়ীরা ফরিদগঞ্জ সদর, রূপসা বাজার, গৃদকালিন্দিয়া এবং রায়পুর থেকে দোকানের জন্য মোকাম করে। বর্ষাকালে তাদের পড়তে হয় চরম বিপাকে। দ্বিগুণ ভাড়া দিয়েও কোন যানবাহন পাওয়া যায়না। এতে তাদের ব্যবসায়ীক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে হয়।

স্থানীয়রা জানায়, এই সড়ক ব্যবহার করছে এজি ক্যাডেট কিন্ডার গার্টেন, গৃদকালিন্দিয়া হাজেরা-হাসমত বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, চাঁদপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, চাঁদপুর মহিলা কলেজ, চাঁদপুর আল আমিন কলেজ, ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজ, ফরিদগঞ্জ এ আর পাইলট মডেল হাই স্কুল, ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামিল মাদ্রাসা, কাছিয়াড়া মহিলা আলিম মাদ্রাসা, আদর্শ একাডেমি ফরিদগঞ্জ, চরপাড়া মোহাম্মদীয়া আলিম মাদ্রাসা, চতুরা ব্র্যাক স্কুল, মাতৃছায়া কিন্ডার গার্টেন এবং বড়ালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতশত শিক্ষার্থী। এছাড়া এই এলাকায় বেশ কয়েকটি নার্সারী, একাধিক ফিশারী এবং হ্যাচারী থাকায় প্রতিদিনই পিককাপ, ট্রলি সহ পাওয়ার ট্রলি যাতায়াত করে।

অভিযোগ রয়েছে, জনবহুল রাস্তাটি পাকা হয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সাবেক সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ এবং মেয়র মঞ্জিল হোসেনের দ্বন্দে¦র কারণে তা আলোর মুখ দেখেনি। চাঁদপুর-লক্ষীপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে সংযোগ সড়কটির কাজ হওয়ার কথা ছিলো। পৌরসভার অংশ বাদ দিয়ে ১৫নং রূপসা উত্তর ইউনিয়নের সীমানা থেকে রাস্তার কাজ শুরু হয়। এর আগে সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম আলমগীর হায়দার খানও রাস্তাটি পাকা করনের আশ^াস দেন। বর্তমান সংসদ সদস্য ড.মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া এলাকাবাসীর দাবীর মুখে রাস্তাটি পাকা করনের ওয়াদা করেন। বিগত মেয়রের ৫ বছর, বর্তমান মেয়রের আড়াই বছরের মধ্যে এলাকাবাসী বহু প্রতিশ্রুতি শুনেছেন।

আতিক, মানিক, বিল্লাল ও শাহআলমসহ বেশ কয়েকজন এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,‘নেতারা নির্বাচনের আগে এটা করে দিবেন ওটা করে দিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন অথচ নির্বাচনের পর সব ভুলে যান। তাদের কাছে আমাদের একমাত্র চাওয়া শুধুমাত্র এ রাস্তাটুকু পাকা করতে হবে।’

এ ব্যাপারে ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলার ও প্যানেল মেয়র আব্দুল মান্নান পরান জানান, রাস্তাটি ব্যস্ততম এবং গুরুত্বপূর্ণ বিধায় আমি সমস্ত কাগজপত্র ঢাকাতে পাঠিয়েছি। ফাইল ওকে হলে টেন্ডার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে রাস্তাটি পাকা করা হবে।

বর্তমান মেয়র মো.মাহফুজুল হক চাঁদপুর রিপোর্টকে বলেন, রাস্তাটি আর.সি.সি ঢালাই করা হবে। ইতিমধ্যে উক্ত রাস্তার ফাইল মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। আশা করি সহসায় কাজ ধরতে পারবো।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রফিকুল আমিন কাজল চাঁদপুর রিপোর্টকে বলেন,বর্তমান এমপি মহোদয় উপজেলা প্রকৌশলীকে রাস্তাটির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছেন। এখন প্রকৌশলীর অফিসে গেলে বুঝতে পারবো কাজের অগ্রগতি কতটুকু হয়েছে।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
573 জন পড়েছেন