শ্বশুরবাড়ির পুকুরে নববধূর গলায় কলসিবাঁধা মরদেহ

0
34

প্রকাশিত: ১২:০৩ পিএম, ০৭ আগস্ট ২০১৮

ঢাকার দোহারে বিয়ের তিন দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির পুকুর থেকে শিখা আক্তার (১৮) নামে এক নববধূর গলায় কলসিবাঁধা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার উত্তর জয়পাড়ার মিয়াপাড়া এলাকার পুকুর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

নিহত শিখা আক্তার মিয়াপাড়া এলাকার রুহুল আমীনের স্ত্রী।

ঘটনার পর থেকে রুহুল পলাতক রয়েছেন। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আটকরারা হলেন- রুহুলের চাচা মো. খোকন (৫০), মা আসমা বেগম (৪৫), বোন ফারিয়া আক্তার (১৮) এবং ভাবি মোহনা আক্তার (২০)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে দোহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সিরাজুল ইসলাম বলেন, দোহারঘাটা এলাকার কুয়েত প্রবাসী মো. সিরাজের মেয়ে শিখা আক্তারের সঙ্গে গত শুক্রবার রুহুল আমীনের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। রোববার রাত থেকে শিখার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো হদিস মেলেনি।

একপর্যায়ে সোমবার সন্ধ্যায় শ্বশুরবাড়ির পুকুরে কচুরিপানার নিচে গলায় কলসিবাঁধা অবস্থায় শিখার মরদেহ তার বাবার বাড়ির লোকজন খুঁজে পায়। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ওসি বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে নববধূর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। ঘটনাস্থল থেকে চারজনকে আটক করা হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
594 জন পড়েছেন