চাঁদপুরে বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা

0
26

মোঃ জামাল হোসেন :
চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলায় দু’সন্তানের জননী বিষপানে আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছেন। রোববার বিকেল ৫ টায় শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

এ ব্যাপারে নিহতের পিতা জানায়, পৌরভার ৪নং ওয়ার্ডের নাওড়া মোহল্লার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে সৌরভকে (৩০) পাশ্ববর্তী ঘুঘুশাল গ্রামের মোঃ হাবিবুর রহমানের মেয়ে শারমীন সুলতানা রিমা’র (২২) সঙ্গে প্রেমের সূত্রপাত হয়। পরে বিষয়টি দুই পরিবারের মধ্যে জানাজানি হলে ৬ বছর পূর্বে মুসলিম রীতিতে বিবাহের কাজ সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের সংসার জীবন ভালোই কাটছিলো। এরই মধ্য পরিবারটির কোল জুড়ে দু’টি সন্তান জোহরা (৩) ও সোহান(১) দুনিয়ায় আসে। এক সময় জীবিকার প্রয়োজনে স্বামী সৌরভ ঢাকা মহাখালিতে ফিলিপস কোম্পানীতে চাকুরী জুটিয়ে নেয়। বিয়ের কয়েক বছর যেতেই স্বামী সৌরভের আচরণের ছোট খাটো দেন দরবার রিমার পিতার নিকট আসতে শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় গত রমজানের ঈদে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ দেখা দিলে রিমার পিতা হাবিবুর রহমান বিষয়টি নিষ্পত্তি করেন। সাময়িক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রিত থাকলেও গত ২১ আগস্ট মঙ্গলবার পৌর শহরের সাহাপুর পাটওয়ারী বাড়ির আনছার আলী মাষ্টারের ভাড়াটিয়া বাসায় আবার তাদের স্বামী-স্ত্রী বিবাদে জড়িয়ে পড়ে। ওই বিবাদকে কেন্দ্র করে রিমা ৪দিন অনাহারি থেকে দুঃখ সইতে না পেরে ২৫ আগস্ট শনিবার সকালে বিষপান করে। তাৎক্ষনিক স্বামী সৌরভ তাঁকে দ্রুত শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে ডাক্তার আতিকুর রহমান প্রয়োজনীয় চিকিৎসা শেষে রিমাকে ভর্তি দেয়। রবিবার সকালে সৌরভ ঢাকায় কর্মস্থলে ছুটে গেলেও তাঁর পরিবারের কেউ বৌকে একনজর দেখতে আসেনাই। এ অবস্থায় বিকেল ৫টায় রিমা চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন বলে কর্তব্যরত ডাক্তার নিশ্চিত করেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এ সংবাদ পেয়ে শাহরাস্তি থানার উপ-পরিদর্শক সমীর মজুমদার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মরদেহ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেন।

শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মিজানুর রহমান জানান, লাশের ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর প্রেরণ করা হয়েছে। মেয়ের বাবা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় ২৮ আগস্ট ২০১৮ মঙ্গলবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

 

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
222 জন পড়েছেন