খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে দেশে কোন নির্বাচন হবে না : ড. আব্দুল মঈন খান

0
31

নিজস্ব প্রতিবেদক :
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন বাংলাদেশে গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হলে গণতন্ত্রের নেত্রী খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে দেশে কোন নির্বাচন হবে না।

তিনি বলেন, দেশ স্বাধীনের ৪৭ বছর পরেও আজ আমাদের বলতে লজ্জা হচ্ছে যে গণতন্ত্র সুশাসন ও স্বাধীনতা নাই। ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের মানচিত্র আজ সেই দেশের জনগণকে আওয়ামী লীগ এবং তার নেত্রী শেখ হাসিনা মানুষকে জিম্মি করে রেখেছে। মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। সুশাসন বলতে দেশে কিছু নেই। দেশে চলছে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা কোনটাই দেশে এখন চলছে না। তিনি বলেন এই অবস্থায় একটি সার্বভৌম রাষ্ট্র চলতে পারে না। তিনি প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে বলেন, আপনি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জাতির সামনে যে মিথ্যাচার করেছেন একটি দেশের প্রধানমন্ত্রী এরকম মিথ্যাচার করতে পারে না। অসুস্থ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দ্রুত সুচিকিৎসা ও মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। অন্যথায় খালেদা জিয়ার থেকে তার থেকে বড় কিছু আপনার জন্য অপেক্ষা করছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

তিনি বলেন, দেশে যদি আইনের শাসন থাকতো তাহলে বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন হওয়ার পরেও নাটকীয়ভাবে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলায় সরকার হয়রানি করতো না। সুশাসন নেই বলেই আজ বিচার ব্যবস্থাকে সরকার তাদের খুশীমত ব্যবহার করছে। আগামীদিনে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে এবং দেশের জনগণকে যদি রাজনীতিবিদরা ভালবাসে তাহলে সকল ভেদাভেদ ভুলে লোভ লালসার ঊর্ধ্বে থেকে সকল রাজনীতিক দলের সরকার বিরোধী আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধভাবে ঝাপিয়ে পড়তে হবে।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় ঐক্যের যে চলমান প্রক্রিয়া চলছে তাতে আমরা অভিনন্দন জানাই। তবে সেসব নেতাদেরকেও মনে রাখতে হবে জাতীয় ঐক্য একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন এবং জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা, মানুষের জানমালের নিরাপত্তা এবং বর্তমান সরকারের গুম-খুনের থেকে মানুষকে মুক্তি দেয়াই হবে এখন জাতীয় ঐক্য। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্য কোন শর্ত দিয়ে হয় না। কারণ যারা জাতীয় ঐক্যের চেষ্টা করছেন তারাও এদেশের বরেণ্য রাজণীতিবিদ। তারা যদি নিজেদের সুবিধার্থে হালুয়া-রুটি ভাগ-বাটোয়ারার জন্য শর্ত জুড়ে ঐক্য করতে চান তাহলে কাগজ-কলমে মুখেই ঐক্য থাকবে বাস্তবে ঐক্য বাস্তবায়ন করা কঠিন হয়ে যাবে। সকল রাজনৈতিক দলকে শর্তের ঊর্ধ্বে থেকে দেশের জনগণের মঙ্গলের জন্য জাতীয় ঐক্য অপরিহার্য।

৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং রবিবার সকাল ১০.৩০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ৩য় তলার হলরুমে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট কর্তৃক ‘সংঘাতের রাজনীতি গণতন্ত্র ও সুশাসনের জন্য হুমকি’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট এর চীফ কো-অর্ডিনেটর সালমান ওমর রুবেল এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক তথ্যমন্ত্রী ড. আব্দুল মঈন খান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাবি অধ্যাপক ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সুকমল বড়–য়া, বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরীন সুলতানা, বিএনপি’র নির্বাহী কমিটির সহ সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কন্ঠশিল্পী মনির খান, বিএনপি’র নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মো. রহমাতুল্লাহ, জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের সভাপতি হুমায়ুন কবির বেপারী, ঢাকা মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, মো. দেলোয়ার হোসেন, আজাহার পাঠান উদ্দিন প্রিন্স, ইকবাল চৌধুরী সহ প্রমুখ।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  খ্রি. রোববার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

 

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
389 জন পড়েছেন