পর্নোগ্রাফিতে আসক্তির ১০টি ক্ষতিকর দিক

0
1034

অনেকের ক্ষেত্রেই পর্নোগ্রাফি আসক্তির পর্যায়ে চলে গেছে। এতে মানসিক, শারীরিক এবং সামাজিক জীবনে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। জেনে নিন পর্নোগ্রাফিতে আসক্তির দশটি ক্ষতিকর দিক।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

পর্নো দেখার ফলে মনের মধ্যে যৌনতা সম্পর্কে এমন অবাস্তব কল্পনা বা প্রত্যাশা জন্মায়। এমনকী, নিজের পার্টনার বা যৌনসঙ্গীও সেই কল্পনার অংশ হয়। বাস্তব অভিজ্ঞতা যখন সেই কল্পনার সঙ্গে মেলে না, তখন নিজের পার্টনারের প্রতি বিরূপ মনোভাব দেখা দিতে পারে।
পর্নো আসক্তি লুকানো মুশকিল। এই ধরনের আসক্তি লুকাতে মিথ্যে কথা বলতে হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা প্রকাশ্যে চলেই আসে। ফলে, নিজেকে পর্নো-আসক্ত মনে হলে বিশ্বস্ত কোনো বন্ধুকে তা বলা যেতে পারে। সাহায্য নেওয়া যেতে পারে মনোবিদ বা চিকিৎসকেরও।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

পর্নো আসক্তির ফলে যৌনজীবনেও সমস্যা দেখা দিতে পারে। ছেলেদের ক্ষেত্রে ‘ইরেক্টাইল ডিসফাংশন’-এর মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। টিনএজাররা পর্নো আসক্ত হয়ে পড়লে ভবিষ্যতে তাদের ক্ষেত্রেও একই ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

পর্নো আসক্ত হয়ে পড়েলে সব সময়ে পর্নোগ্রাফিই চিন্তাভাবনাকে গ্রাস করে থাকে। অন্য কোনও কাজের মধ্যেও পর্নোগ্রাফি দেখার প্রবল ইচ্ছে জাগে।

পর্নো আসক্ত হয়ে পড়লে নিজের প্রতি একটি ঘৃণা জন্মায়। সম্ভবত সেই কারণেই এই আসক্তির চিকিৎসা করা বা অন্যের সঙ্গে আলোচনা করার ক্ষেত্রেও মনের মধ্যে সংকোচ হয়। মানসিক এমন অবস্থায় পর্নো আসক্তের বেঁচে থাকা অত্যন্ত কঠিন হয়ে ওঠে।

একটানা পর্নো আসক্তির ফলে স্নায়ু, মস্তিষ্কের উপরে চাপ পড়ে। এমনকী ,উগ্র ছবি, ভিডিও দেখে তৃপ্ত হওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। যার থেকে যৌন বিকৃতিও জন্মাতে পারে।

এই ধরনের আসক্তির ফলে নিজের পরিবার, বন্ধুবান্ধবকে সময় দেওয়া কমে। তৈরি হয় দূরত্ব। যার ফলে নিজেকে দোষী মনে হয়। একাকীত্ব কাটাতে আরও পর্নো দেখার ইচ্ছে জাগে।

পর্নো আসক্ত হয়ে পড়লে তার পিছনে খরচ যেমন বাড়ে, সেরকমই এই আসক্তির প্রভাব পড়েতে পারে পেশাদারি জীবনেও। কর্মক্ষেত্রে যা সমস্যা তৈরি করতে পারে।

মানসিক ক্ষতি তো রয়েছেই, পর্নো আসক্তির ফলে শারীরিক ক্ষতির সম্ভাবনাও প্রবল। ভয়, দুশ্চিন্তা, অবসাদ, রাগ, একাকীত্বের মতো সমস্যা তো থাকেই। একটানা পর্নো দর্শনের জেরে পিঠের ব্যথা, চোখের সমস্যা, খাওয়া-ঘুমের অনিয়মের মতো সমস্যাও অস্বাভাবিক নয়।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
1,335 জন পড়েছেন