চাঁদপুরে হাত-পা-মুখ বেঁধে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, আহত ৪

0
25

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৯নং বালিয়া ইউনিয়নে বাড়ির লোকজনের হাত-পা-মুখ বেঁধে বসতঘরে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

ডাকাতের হামলায় ৩ নারীসহ গৃহকর্তা গুরুতর আহত হয়েছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

২৪ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত পৌনে ৩টার সময় ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মধ্য বালিয়া গ্রামের জহিরের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

রক্তাক্ত অবস্থায় জহির গাজীর ভাড়াটিয়া কম্পিউটার সেন্টারের শিক্ষক তানভীর হোসেন (৩৩), তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার (৩০) ও বাড়ির মালিকের বোন জ্যোৎস্না বেগমকে ঘটনার রাতে ৪টার সময় চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত কালো টর্চ লাইট জব্দ করেছে।

বালিয়া ত্রিপুরা জাতি সমাজকল্যাণ সংস্থার কম্পিউটার সেন্টারের শিক্ষক আহত তানভীর হোসেন জানান, ৬/৫ জনের ডাকাত দল প্রথমে বাড়ির জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে এবং ঘরের দরজা ভেঙ্গে বাড়ির মালিকের বোন ও ভাগি্নকে মুখ চাপা দিয়ে হাত-পা বেঁধে ফেলে। এরপর আলমিরা তছনছ করে লুটপাট শুরু করে। পরে ভাড়াটিয়া ঘরের দরজা আঘাত করলে আমরা ঘুম থেকে উঠে পড়ি। ডাকাতরা তখন আমার ও আমার স্ত্রীর উপর কাঠের টুকরা ও টর্চলাইট দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত শুরু করে। তখন সাহস করে চিৎকার করলে এক পর্যায়ে বাড়ির আশপাশের লোকজন ছুটে আসতেই ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ডাকাতদের কাউকে চিনতে পারেনি বলে জানান ওই শিক্ষক। পরে ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামকে জানালে চেয়ারম্যান থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ইব্রাহীম খলিল বলেন, খবর পেয়ে সদর সার্কেল স্যারসহ আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ঘরে ল্যাপটপ, মোবাইলসহ অনেক কিছু থাকা সত্ত্বেও তারা কিছুই নেয়নি। শুধু শিক্ষক পরিবারের উপর হামলা করে চলে গেছে। তাই ঘটনাটি রহস্যজনক। আমরা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছি।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  খ্রি. বুধবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
469 জন পড়েছেন