চাঁদপুরে হামলা ভাংচুর লুটপাট, আহত ৫

0
24

চাঁদপুর শহরের মমিনপাড়াস্থ সর্দার খাঁর বাড়ীতে স্থানীয় ও চিহ্নিত ভূমি দস্যু খাজা আহম্মেদের নেতৃত্বে এতিম একটি পরিবারের বসত ঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট করে ৫ জনকে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সর্দার খাঁর বাড়ীর মৃত সিরাজ খানের পৈত্রিক সম্পত্তি দখলীয় অবস্থায় রয়েছে। তার মৃত্যুর পর তার ওয়ারিশগণ ঐ সম্পত্তিতে বসবাস করে আসছে। এতিম এ পরিবারটির সম্পত্তিতে চোখ পরে স্থানীয় চিহ্নিত ভূমি দস্যু খাজা আহম্মেদের। এতিম এ পরিবারের সম্পত্তি দখল করার জন্য খাজা আহম্মেদ,পিতা-মৃত ইউনুছ খান মৃত সিরাজ খানের পরিবারকে বিভিন্নভাবে হয়রানী করে আসছে। একেক বার তিনি এ সম্পত্তিতে দখল করার জন্য বিভিন্ন সময় ভূয়া খতিয়ান বানিয়ে তাদেরকে বিভিন্ন হয়রানী করছে। এ অবস্থায় সিরাজ খানের পরিবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা চায়। কিন্তুু খাজা আহম্মেদ খান গংদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারনে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ এ বিষয়ে সমাধান দিতে রাজি না হওয়ায় পরিবারটি চাঁদপুর কোর্ট মামলা দায়ের করেন। এ অবস্থায় খাজা আহম্মেদ খান গংরা এই সম্পত্তি দখলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে। এই ঘটনা টের পেয়ে মৃত সিরাজ খানের স্ত্রী তাহেরা বেগম (৬০) সম্পত্তি রক্ষায় পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং তারিখে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। সকালে অভিযোগ দাখিলের পর দুপুর ৩টার দিকে খাজা আহম্মেদ গংরা খাজা আহম্মেদের নেতৃত্বে ফারুখ খান,আলমাছ খান,সর্বপিতা-ইউনুছ খান,জাকির খান,পিতা-খাজা আহম্মেদ খান,আলামিন খান,পিতা-আলমাছ খান,নাছির খান,পিতা-ইউনুছ খান,হোসেন মিজি ও মজিব মিজি গংদের নেতৃত্বে প্রায় শতাধিক লোকজন দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নারকীয়ভাবে মৃত সিরাজ খানের বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এমনকি মৃত সিরাজ খানের স্ত্রী তাহেরা বেগম মেয়ের জামাই জাকির হোসেন দোলন চৌধুরী সহ শিশু বাচ্চারাও এ হামলা থেকে রক্ষা পায়নি।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

শুধু তাই নয় এ পরিস্থিতি দেখে এলাকাবাসী সামনে এগিয়ে আসলে তাদের উপরও হামলা চালায়। এক পর্যায়ে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে চাঁদপুর মডেল থানাকে বিষয়টি জানালে মডেল থানার অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে মডেল থানার এসআই বিপ্লব ঘটনাস্থলে যান। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে খাজা আহম্মেদের নেতৃত্বে আসা সন্ত্রাসীগণ ঘটনাস্থল দ্রুত ত্যাগ করে। পরে পুলিশের সহযোগিতায় আহত তাহেরা বেগম ও জাকির হোসেন দোলন চৌধুরীকে ২৫০ শর্য্যা বিশিষ্ট চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করানো হয়। এদের ২ জনের অবস্থা আশংকাজনক। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুুতি চলছে বলে আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এ সন্ত্রাসী হামলার বিষয়ে চাঁদপুর মডেল থানার এসআই বিপ্লবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

অপর দিকে এলাকাবাসী জানান, খাজা আহম্মেদ খানের নেতৃত্বে উক্ত এলাকায় বেশ কয়েক বছর যাবত বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে এবং তার নেতৃত্বে বহু নিরীহ মানুষের সম্পত্তি দখল সহ বিভিন্ন অপকর্ম করা হলেও তার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে জানালে কয়েকদিন তৎপরতা থাকলেও পরবর্তীতে তা নিরব হয়ে যায়। তাই ভূক্তভোগী পরিবারগুলো উক্ত এলাকার চিহ্নিত ভূমি দস্যু ও চাঁদাবাঁজ খাজা আহম্মেদ খান গং দের বিষয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  খ্রি. শনিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
194 জন পড়েছেন