বুলেটের জন্য অনেক ভালোবাসা : ডা. দীপু মনি

ডা. দীপু মনি এমপি :

চাঁদপুর শহরের ষোলঘরে জেলা গ্রন্থাগার ভবনের ভিত্তিফলক উন্মোচন করে বেরুবার মুখেই ছোট্ট একটি ছেলে দৌড়ে সামনে এসে অামার দিকে একটি গোলাপ এগিয়ে দিলো। ঐশ্বরিক হাসি যেন তার মুখে অার ঝকঝকে দু’চোখে। অামি ওকে কাছে ডেকে অাদর করে নাম জিজ্ঞেস করতে চেষ্টা করলাম। ও লাজুক চেহারা নিয়ে সরে গেলো।

এলাকার ছোট ভাইরা বললো, ও বাক প্রতিবন্ধী। ওর নাম কেউ জানেনা। সবাই ওকে বুলেট বলে ডাকে। অামার বুকের মধ্যে যেন বুলেট বিদ্ধ হলো। এ ছোট্ট মানুষটি কথা দিয়ে তার ভাব প্রকাশ করতে পারেনা বলেই কি ওর দু’চোখের অভিব্যাক্তি এতো কিছু বলে! ও অামাকে ওর যত ভালোবাসা অাছে তার সবটুকু যেন উজার করে দিয়ে দিলো ঐ কয়েক মুহূর্তের মধ্যে। অামি অভিভূত হলাম।

অামরা যারা কথা বলতে পারি, তারা বলতে পারার সামর্থকে কখনো সৌভাগ্য হিসেবে ভাবিনা। এ সামর্থ্যকে ব্যাবহার করার ক্ষেত্রে অামরা কতটুকু সচেতন? অামরা কি কথা বলবার সময় ভাবি অামরা যা বলছি তা সত্য কিনা? তা কল্যাণকর কি না? তা কারো কোনো ক্ষতির কারণ হবে কি না? তা কাউকে কষ্ট দেবে কি না? বেশীরভাগ সময়ই হয়তো এ চিন্তাগুলো না করেই অামরা কথা বলি। এবং অনেক সময়ই অামাদের চিন্তা, কথা ও কাজের মধ্যে ঐক্য থাকেনা। পৃথিবীর অধিকাংশ সমস্যার উৎস অগ্রপশ্চাৎ বিবেচনাহীন কথা।

ছোট্ট বুলেটকে দেখে অামার অাবার মনে হলো, কথা বলবার সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত ক্ষমতাকে সৌভাগ্য না ভেবে অবহেলায় যেনতেন ব্যবহার করে, বা অপব্যবহার করে কত বিপত্তিই না অামরা ঘটাই প্রতিদিন, কত অশান্তির জন্ম দিই। অামরা একটু সচেতন হলেই বদলে ফেলতে পারি নিজেদের, বদলে ফেলতে পারি পরিবেশ। জীবনকে করতে পারি অারও সুন্দর, শান্তিময়, অানন্দপূর্ণ ও অর্থবহ।

বুলেটের জন্য অনেক ভালোবাসা।

 

আপডেট : বাংলাদেশ সময় : ০১:১৮ পিএম, ০৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রি.রোববার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

 

601 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়