‘মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে হবে’ : মায়া চৌধুরী

0
24

সফিকুল ইসলাম রানা, মতলব উত্তর প্রতিনিধি :

বিএনপি ও জামায়াতের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে এজেন্ডা নিয়ে তারা জোট গঠন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংসের চক্রান্ত করছে। তারা মুক্তিযুদ্ধের লেবাসে ধানের শীষে ভোট চাচ্ছে। এদের প্রতিহত করতে হবে, নইলে দেশে রক্তগঙ্গা বয়ে যাবে। তাই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ক্ষমতায় আনতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে হবে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মঙ্গলবার দুপুরে নিজ বাড়ীতে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মতবিনিময়কালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এমপি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, জাতীয় সংসদে রাজাকার বা নব্য রাজাকাররা যেন না আসতে পারে, সেজন্য মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি ফোরামের নেতারা আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, প্রত্যেক জোটের আদর্শিক ভিত্তি থাকে; কিন্তু যে জোটে বিশিষ্ট ও বরেণ্য মুক্তিযোদ্ধারা আছেন, সেখানে জামায়াতও জোটভুক্ত। একেবারে নির্লজ্জ না হলে এটা সম্ভব নয়। রাজাকার কখনো মুক্তিযোদ্ধা হয় না, কিন্তু সুবিধাভোগী মুক্তিযোদ্ধারা অনেক সময় রাজাকারের বেশ ধারণ করেন। সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করে আওয়ামী লীগকে আবার ক্ষমতায় আনতে হবে। এ ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের গুরুত্বপূর্র্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক সভাপতি শহীদুল আলম রবের সভাপতিত্বে ও সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাবেক সভাপতি মোজাম্মেল হকের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- ত্রাণমন্ত্রীর পুত্র সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু।

আরো বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, হাসান ইমাম, এসএম আ. রশিদ সরকার, এ্যাড. মাঈনুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার গোলাম মোস্তফা রতন, শহীদ উল্লাহ সাহেদ, জয়নাল প্রধান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমন, ফেরদাউস, পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার আ. সাত্তার।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় :০৭:৫৩ পিএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৮ খ্রি. মঙ্গলবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
156 জন পড়েছেন