হাওরে প্রবাসীর স্ত্রীর কঙ্কাল, প্রেমিকসহ আটক ৩

0
220

জেলা প্রতিনিধি হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে নিখোঁজের দেড় মাস পর সুজনা বেগম (১৯) নামে এক নারীর কঙ্কাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ওই নারীর সাবেক প্রেমিক শাহিন মিয়াসহ ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

http://picasion.com/

নিহত সুজনা ওই উপজেলার ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের বক্তারপুর গ্রামের তোলাফর উল্লাহর মেয়ে।

পুলিশ জানায়, গত ৩১ অক্টোবর সন্ধ্যায় সুজনা তার খালারবাড়ি সৈয়দপুরে যাওয়ার সময় নিখোঁজ হন। ঘটনার পর তার বাবা তোলাফর উল্লাহ বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়রি করেন।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের কইখাই গ্রামের ইলিমপুর হাওরে স্থানীয় লোকজন কঙ্কালের কিছু হাড় ও কাপড় দেখে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ ও বাহুবল সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে কঙ্কাল ও কাপড় উদ্ধার করে।

পরে থানায় সুজনার বাবা তোলাফর উল্লাহ কাপড় দেখে সেটি মেয়ের মরদেহ বলে শনাক্ত করেন। এ ঘটনার পর পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে কইখাই গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে সাবেক প্রেমিক শাহিন মিয়াসহ ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

নিহত সুজনার ভাই শাহিনুর রহমান জানান, তার বোন সুজনার সঙ্গে কইখাই গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে শাহিন মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। পরবর্তীতে সুজনাকে পার্শ্ববর্তী মোস্তফাপুর গ্রামের জয় হোসেনের সঙ্গে বিয়ে দেন। বিয়ের কিছু দিন পর জয় হোসেন সৌদি আরব চলে যান। এরপর থেকে প্রেমিক শাহিন সুজনাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল আহমেদ জানান, হাওর থেকে গৃহবধূর কঙ্কাল ও কাপড় উদ্ধারের পর তার বাবা মরদেহ শনাক্ত করেন। এ ব্যাপারে সন্দেহভাজন হিসেবে তার সাবেক প্রেমিক শাহিনসহ ৩ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। তাদেরকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

প্রকাশিত: ১২:৩০ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
407 জন পড়েছেন
http://picasion.com/