hazigonj

হাজীগঞ্জ বাজার সিসি ক্যামেরার আওতায় আসছে

সাইফুল ইসলাম সিফাত :
অবশেষে প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যায়ে হাজীগঞ্জ বাজার সিসি ক্যামেরার আওতাভূক্ত হচ্ছে। গত ৩ ডিসেম্বর এ সংক্রান্ত্র একটি চুক্তি সম্পাদনাও করেছে ঢাকাস্থ সিম্যাক টেকনোলজির সাথে হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতি। হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজার (হাজীগঞ্জ পাইলট হাইস্কুল এন্ড কলেজ গেইট) থেকে পশ্চিম বাজার মিঠানিয়া ব্রীজ পর্যন্ত এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকছে। এছাড়া বাজারের প্রতিটি গলি, গুরুত্বপূর্ণ স্থান, থানা রোড এলাকাসহ পুরো বাজারটিকে প্রাথমিক পর্যায়ে ৫২টি এইচডি ২ মেগা ফিক্সেলের আইপি ক্যামেরা ধারা নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু হয়েছে। এতে প্রায় খরচ হবে ১৫ লাখ টাকা।

হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির গেল নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পদক পদের প্রার্থীরা তাদের স্ব স্ব নির্বাচনী ইশতেহারে নির্বাচিত হলে বাজারকে সিসি ক্যামেরার আওতাভূক্ত করার ঘোষনা দিয়ে ছিলেন। তারই প্রেক্ষিতে বর্তমান পরিষদ এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে মাঠে নামেন। এছাড়াও চলতি বছর বাজারের বড় ৪টি চুরির ঘটনায় ব্যবসায়ীদের বেশ ভাবিয়ে তুলেছিল। অন্যদিকে প্রশাসনের তরফ থেকেও চুরির বিষয়ে পুলিশ কোন তথ্য উদঘাটন বা চোর সনাক্তে অনেকটাই ঢিমেতালে পার করছেন। বাজারের বিভিন্নস্থানে চুরি, ছিনতাই ও বিভিন্ন অপরাধমূলক ঘটনা, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ ও আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ের জন্য বাজার ব্যবসায়ী সমিতি ও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সাথে হয় একাধিক বৈঠক। কিন্তু তাতেও কোন ফল না পাওয়ায় হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজন বাজারের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে আলোচনায় বসেন।

আলোচনায় বাজার ব্যবসায়ীদের অর্থে প্রাথমিকভাবে ৫২টি ক্যামেরা স্থাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ২৪ঘন্টায় ২জন করে মনিটরিং করা, নিরাপত্তা কর্মী দ্বারা নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, ওয়াকি টকির মাধ্যমে তাৎক্ষনিক যে কোন ব্যবস্থা গ্রহণসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া যাবে এ প্রযুক্তির মাধ্যমে বলে জানা যায়। এছাড়াও সমিতির কার্যালয়ে একটি মনিটর রাখা হবে। যা সমিতি থেকে মনিটরিং করা হবে বলে সমিতির কার্যালয় সূত্রে জানা যায়।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজন চাঁদপুর রিপোর্টকে জানান, এটি একটি ঐতিহ্যবাহী বাজার। বাজারের ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা দেয়ার পাশাপাশি আমাদেরকে ক্রেতারও নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে ভাবা ও দেখতে হয়। তাছাড়া দিনদিন দেশ এগিয়ে যাচ্ছে প্রযুক্তিগত দিকে। আমরা পিছিয়ে থাকবো কেন?

তিনি আরো বলেন, প্রথম পর্যায়ে ব্যাবসায়ীদের অর্থায়নে প্রায় ১৫ লক্ষ্য টাকা ব্যয়ে সম্পূর্ণ অপটিকাল ফাইভারে ৫২টি এইচডি ২ মেগাফিক্সেল আইপি ক্যামেরা বসানো হচ্ছে। পাশাপাশি ইন্টারনেটের মাধ্যমেও বিশ্বের যে কোন স্থান থেকে এটি মনিটরিং করা যাবে।

টি পূর্ব বাজার (হাজীগঞ্জ পাইলট হাইস্কুল এন্ড কলেজ গেইট) থেকে শুরু করে পশ্চিম বাজার মিঠানিয়া ব্রীজ পর্যন্ত এলাকায় বসানো হবে। একটি মনিটরিং ব্যবস্থার মাধ্যমে একটি শক্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যাবে এ প্রযুক্তির মাধ্যমে। এছাড়াও ১মাস পর্যন্ত থাকবে সকল ডকুমেন্টের রেকর্ড। চলতি (ডিসেম্বর) মাসের ২০ তারিখের মধ্যেই চূরান্তভাবে কাজ সম্পন্ন হবে। পরে আনুষ্ঠানিকভাবে এর কার্যক্রম উদ্ভোধন করার চিন্তা রয়েছে আমাদের ।

বাজারকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা প্রসঙ্গে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন চাঁদপুর রিপোর্টকে বলেন, এটি নিঃসন্দে ভাল একটি উদ্যোগ, আমি এর উদ্যোক্তাদের সাধুবাদ জানাই। পাশাপাশি প্রত্যেকটি বাজার, প্রতিষ্ঠান ও এলাকাকে স্ব স্ব উদ্যোগে সিসি ক্যামেরা বসানো হলে অপরাধ প্রবনতা কমে আসবে। সবাইকে সচেতন হতে হবে এবং করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সিসি বসানোর পূর্বের সিদ্ধান্ত থাকলেও আমি বার বার তাদের সিসি বসানোর অনুরোধ জানিয়ে আসছিলাম। তারই প্রেক্ষিতে আমার ডাকে তারা সাড়া দিয়ে এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন হচ্ছে দেখে আমার খুবই ভাল লাগছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার ৩ ডিসেম্বর হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতি কার্যালয়ে ঢাকাস্থ সিম্যাক টেকনোলজি’র সাথে চুক্তি সম্পাদন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সভাপতি আলহাজ্ব আশফাক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হায়দার পারভেজ সুজন, সিম্যাক এর স্বত্ত্বাধিকারী আমান উল্লাহ আমান, সহ সভাপতি মো. মিজানুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মাসুদ আলম, অর্থ সম্পাদক হাসান মাহমুদ, বাণিজ্য সম্পাদক লিটন, ক্রীড়া সম্পাদক আবু নোমান রিয়াজ প্রমুখ।

আপডেট : বাংলাদেশ সময় :১২:০৯ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রি. বুধবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন এবং শেয়ার করুন …

609 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন