মাদ্রাসার গোপন কক্ষে পরকীয়া প্রেমিকার সাথে মিলিত ইমাম, ধরে ফেলল জনতা!

0
447

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক ::

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় পরকিয়া প্রেমিকার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সময় কাটাতে গিয়ে এলাকাবাসীর কাছে হাতেনাতে ধরা খেয়েছেন এক ইমাম।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এলাকাবাসীও ইমাম বলে ছেড়ে দেননি। সোপর্দ করেছেন পুলিশের হাতে। এরপর ৪ লাখ টাকা দেনমোহরে দ্বিতীয় বিয়ে করতে বাধ্য হন সেই ইমাম।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

বুধবার (১ মে ) রাত ৮টায় তাদের বিয়ে দেয়া হয় তারাকান্দা থানায়।

জানা গেছে, ময়মনসিংহের কোতয়ালী থানাধীন শহরের বলাশপুর এলাকার নুরুল ইসলামের কন্যা ও তারাকান্দা উপজেলার কামারিয়া গ্রামের মৃত আঃ মজিদের স্ত্রী ২সন্তানের জননী ওই বিধবার সঙ্গে উপজেলার কয়ারাকান্দা গ্রামের মৃত আবুল হুসাইনের পুত্র ৩ সন্তানের জনক স্থানীয় কোদালধর বাজার জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মোঃ আজিজুল হক আজাদীর (৪৫)পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

এরপর প্রায়ই সে প্রেমিক ইমাম কর্তৃক পরিচালিত তারাকান্দা দক্ষিন বাজার আল মানার ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসার গোপন কক্ষে দেখা সাক্ষাতে মিলিত হয়। ঘটনার দিন ১০টায় ওই কক্ষে মিলিত হলে স্থানীয় লোকজন আটক করে পুলিশে খবর দিলে এস আই আবুল কালাম প্রেমিক যুগলকে থানায় নিয়ে যায়। পরে উভয় পক্ষের অভিভাবকরা আলোচনা করে বিয়ে সম্পন্ন করেন।

তারাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, আগে মুসলিম নিয়ম অনুযায়ী বিবাহ পড়ানো হয়। ওই দিন উভয় পক্ষের অভিভাবকরা কাবিন রেজিষ্ট্রি করেন।

এদিকে মসজিদের ইমাম হয়ে পরনারীর সাথে এমন অসামাজিক মেলামেশা এবং মাদ্রাসার ভেতরেই ব্যভিচারে লিপ্ত হওয়ার ঘটনা প্রকাশ্যে আসলে ক্ষোভে ফুঁসছে স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা।

প্রকাশিত : ০২ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার : ১০:৪৭ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
375 জন পড়েছেন