মতলবে নৌকার পক্ষে মায়া-রুহুল এক মঞ্চে

0
143
মতলবে মায়া ও রুহুল এক মঞ্চে

সফিকুল ইসলাম রানা :
চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-মতলব দক্ষিণ) আসনের বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট আলহাজ্ব নুরুল আমিন রুহুলকে সমর্থন জানিয়ে নৌকা মার্কার পক্ষে কাজ করার নির্দেশ দেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম।

রোববার বিকেলে মন্ত্রীর নিজ বাস ভবনে নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী বলেন, মতলব উত্তর ও দক্ষিণকে তিলে তিলে গড়ে তুলেছি, এ বাগানের অনেক নামিদামি ফুলের সমারোহ হয়েছে। এ সাজানো বাগানে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কান্ডারী হিসেবে আমি এ নেতা-কর্মীদের নিয়ে পরিচর্যা করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্থানে তোমাকে (রুহুল) পাঠিয়েছে নৌকা প্রতিক দিয়ে। দু’উপজেলার আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা তোমাকে সাদরে গ্রহণ ও বরণ করে নিয়েছে। এ চাঁদপুর-২ আসনটি জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেয়ার জন্য সবাই ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। জয়ের কোন বিকল্প নেই, জয় আমাদের আনতেই হবে। বিগত সময়ে আমি এ অঞ্চলের উন্নয়ন করেছি, বাকি উন্নয়ন নৌকার বিজয়ের পর দুজন মিলেই করবো। যেখানে প্রয়োজন হবে আমাকে বলবে, আমি নিজে গিয়ে সেই প্রয়োজন মিটাবো। মতলবের দৃশ্যমান অনেক উন্নয়ন হয়েছে, এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নেতাকর্মীদের ভোটারের কাজ থেকে ভোট আদায় করে আনতে হবে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মন্ত্রী আরো বলেন, মতলবের ভোটাররা নৌকা প্রতিকে ভোট দেয়ার জন্য অপেক্ষা করছে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে শেখ হাসিনাকে তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসাতে পারলেই অদম্য বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-মতলব দক্ষিণ) আসনের বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী এ্যাডভোকেট আলহাজ্ব নুরুল আমিন রুহুল।

এ সময় তিনি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন মতলভবাসীসহ দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, কারণ শেখ হাসিনা দেশে যে উন্নয়নের ধারা শুরু করেছেন, তা অব্যাহত রাখতে হবে। দেশকে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও ক্যু-হত্যা ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতির হাত থেকে রক্ষা করতে হবে। তাই সব ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে নৌকার বিজয়ই আমাদের এর হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। মায়া ভাই, আপনার সাজানো বাগানের আমিও একজন মালি, এ বাগান রক্ষা করা আমার ঈমানী দায়িত্ব। মতলবের অসমাপ্ত কাজ সবার সহযোগিতা নিয়ে শেষ করব। ৩০ ডিসেম্বর আপনার নির্দেশনা মোতাবেক নির্বাচন করা হবে। এ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বিজয় নিশ্চিত করতে আপনার আন্তরিক সহযোগিতা আমার কাম্য। মায়া-রুহুল আমরা দুই ভাই, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মতলবের অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করব। আপনি সব সময় আমার অভিভাবক আছেন, আপনার নির্দেশিত পথ ছাড়া অন্য কোন আদর্শ আমি লালন করি না। আগামী দিনগুলোতেও এ ধারা অব্যাহত রাখব।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় পরিষদ সদস্য একেএম রিয়াজ উদ্দিন মানিকের সভাপতিত্বে ও উপজেলা চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন মন্ত্রীপুত্র সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু, মন্ত্রী পুত্রবধূ সুবর্ণা চৌধুরী বীণা, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন প্রধান, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান, ছেংগারচর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল আলম জজ, মুক্তিযোদ্ধা ম্যাজিষ্ট্রেট রশিদ, মতলব উত্তর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমন, মতলব দক্ষিণ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শওকত আলী বাদল, মতলব দক্ষিণ উপজেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক আসমা আক্তার আঁখি, মতলব উত্তর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, চাঁদপুর জেলা পরিষদ সদস্য মিনহাজ উদ্দিন খান, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাম্মেল হক, সাবেক কমান্ডার গোলাম মোস্তফা রতন, গজরা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি মো. ছানাউল্লাহ মোল্লা, এখলাছপুর গজরা ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি রেহান উদ্দিন নেতা, ষাটনল ইউপি চেয়ারম্যান একেএম শরীফ উল্লাহ সরকার, ফতেপুর পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রি. সোমবার

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
284 জন পড়েছেন