ইটালির যে যৌনপল্লীতে নেই যৌনকর্মী, আছে শুধু সেক্স ডল

0
608

 

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ইটালির টুরিন শহরে সম্প্রতি খোলা এক যৌনপল্লী তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। এই যৌনপল্লীতে নারী যৌনকর্মীর পরিবর্তে আছে সেক্স ডল। চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই এটি ব্যবসাও করছে ভালো।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

এই শহরের খ্যাতি গাড়ি আর চকোলেটের জন্য। কিন্তু সম্প্রতি আলোড়ন এবং বিতর্ক তৈরি করেছে সেখানে খোলা এক নতুন ব্যবসা – নতুন ধরনের এক যৌনপল্লী।

সেখানে নারী যৌনকর্মীর পরিবর্তে আছে কেবল যৌন পুতুল বা সেক্স ডল। এই পুতুলগুলোর সাথেই যৌন কর্ম করে খদ্দেররা।

এই যৌনপল্লীর প্রতিটি কক্ষে আছে একটি করে বিছানা। হালকা লাল আলো জ্বলছে ভেতরে। রুমের ভেতরেই আছে শাওয়ার। টেলিভিশন। আর আছে একটি করে সেক্স ডল।

পুতুলগুলো একেবারেই নরম। মোট ১২টি পুতুল আছে সেখানে। প্রতিটির চুলের স্টাইল আলাদা, দেহের গঠন আলাদা, পরনের পোশাকও আলাদা।

এসব পুতুল তৈরি করা হয়েছে সিলিকন দিয়ে। কিন্তু দেখতে একেবারে জীবন্ত।

যৌনপল্লীর একজন কর্মকর্তা বলেন, আমরা এখানে এখানে ম্যাজিক বিক্রি করছি।

পুতুলের এই যৌনপল্লীটি চালান এক মহিলা। বয়স তার পঞ্চাশের কোঠায়। নিজের নাম বলতে চাইলেন না। কিন্তু তিনি কি আইন মেনে এই ব্যবসা চালাচ্ছেন?

“অবশ্যই এখানে সবকিছু বৈধ, আইন মেনেই করা হচ্ছে। এখানে অনৈতিক কিছু হচ্ছে না, কাউকে শোষণ করা হচ্ছে না। এখানে লোকজন আসছে, ফুর্তি করছে। তারা কারও কোন ক্ষতি করছে না,” বলেন তিনি।

প্রকামিশত ঃ ২৪ জানুয়ারি ২০১৮

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
419 জন পড়েছেন