বিতর্ক মেধা বিকাশের একটি অন্যন্য সহায়ক মাধ্যম

0
27
mde

একাদশ পাঞ্জেরী-চাঁদপুরকণ্ঠ বির্তক প্রতিযোগিতার আজ ফরিদগঞ্জ প্রান্তিক পর্বে সমাপনি অনুষ্ঠানে

বিতর্ক মেধা বিকাশের একটি অন্যন্য সহায়ক মাধ্যম
……… ইউএনও মো. আলী আফরোজ

আনিছুর রহমান সুজন, ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
একাদশ পাঞ্জেরী-চাঁদপুরকণ্ঠ বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০১৯-এর প্রান্তিক পর্ব মঙ্গলবার ফরিদগঞ্জে সম্পন্ন হয়েছে। ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব ও ওনুআ পাঠাগারে দুই ভেন্যুতে একযোগে সকাল ৮টায় প্রতিযোগিতা শুরু হয়। ফরিদগঞ্জে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজ পর্যায়ের মোট ২০টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করার কথা থাকলেও বালিথুবা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বির্তাকিক অসুস্থ হয়ে পড়ায় তারা বাছাই পর্বে অংশ নিলেও চূড়ান্ত পর্বে অংশ গ্রহণ করতে ব্যর্থ হন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

তবে অংশগ্রহণ করা অন্য দলগুলো হলো প্রাথমিক পর্যায়ের ইকরা মডেল মাদ্রাসা এ- একাডেমী, বর্ণমালা কিন্ডারগার্টেন ও আদর্শ একাডেমী প্রাথমিক শাখা। মাধ্যমিক পর্যায়ে ফরিদগঞ্জ এ আর মডেল পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কেরোয়া আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়, আদর্শ একাডেমী মাধ্যমিক শাখা, পুর্ব বড়ালি শাহজাহান কবির উচ্চ বিদ্যালয়, কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়, প্রত্যাশী আর এ উচ্চ বিদ্যালয়, বালিথুবা আ: আব্দুল হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়, শোল্লা স্কুল এন্ড কলেজ মাধ্যমিক শাখা, গৃদকালিন্দিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, রূপসা আহাম্মদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কালির বাজার মিজানুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়। কলেজ পর্যায়ে ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ, কালির বাজার কলেজ, শোল্লা স্কুল এন্ড কলেজ কলেজ শাখা এবং মজিদিয়া কামিল মাদ্রাসা ।

দুপুরে সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো. আলী আফরোজ।

এসময় তিনি বলেন, বিতর্ক শুধু একটি প্রতিযোগিতা নয়, একটি শিক্ষা ও শিক্ষার্থীকে এগিয়ে নেয়ার একটি বড় মাধ্যম। বির্তক শিক্ষার্থীর জ্ঞান বিকাশে সহযোগিতা করে। সুন্দর ও সাবলীল ভাষায় কথা বলতে শেখায়। যুক্তি মাধ্যমে বিষয় উপস্থাপন করে প্রতিপক্ষকে বোঝাতে সক্ষম হবে। বির্তক শুধু স্কুলেই সীমাবদ্ধ নয় সর্বক্ষেত্রেই বির্তক চলমান। দুইটি দেশের মধ্যে কোন বিরোধ নিয়ে বা বিষয়ে চুক্তি নিয়ে চলমান আলোচনাও বির্তকের অংশ। বাংলাদেশ বিতর্ক শিল্পে পিছিয়ে রয়েছি বলেই অনেক কিছু থেকে আমরা বঞ্চিত হয়েছি। তাই বির্তককে শুধু প্রতিযোগিতা না ভেবে আমাদের সকলকে এই বিষয়ে কাজ করা উচিত। একজন শিক্ষার্থী জন কোন বিষয়ে বিতর্ক করে তখন তাকে ওই বিষয়ে আরো বেশি করে জানার জন্য গভীরে প্রবেশ করতে হয়। তাতে তাকে পড়ালেখা করতে হয়। তাই বিতর্ক মেধা বিকাশের একটি অন্যন্য সহায়ক মাধ্যম ।

চাঁদপুরে বিতর্ককে এগিয়ে নিতে গত দশ বছর ধরে চাঁদপুর কণ্ঠ যেই কাজটি করে যাচ্ছে তা প্রশংসনীয় । তাদের পরিশ্রমের কারণে ফরিদগঞ্জসহ পুরো জেলায় বিতর্ক নিয়ে একটি আলাদা কিছু সৃষ্টি হয়েছে বলে আমার বিশ্বাস। ফরিদগঞ্জ উপজেলার আজকের এই আয়োজন তার প্রমাণ। আশা করছি আগামী দিনগুলোতে বিতর্ক আরো শানিত হবে।

সিকেডিএফ ফরিদগঞ্জ শাখার সভাপতি ও চাঁদপুর কণ্ঠের ফরিদগঞ্জ ব্যুরো ইনচার্জ প্রবীর চক্রবর্তী সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে পৌর মেয়র মাহফুজুল হক, দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের বার্তা সম্পাদক এএইচ এম আহসান উল্ল্যাহ, ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের অধ্যাপক রাধেশ্যাম কুরী, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, সিকেডিএফ ফরিদগঞ্জ শাখার উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও প্রেসক্লাব উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যান মো. মামুনুর রশিদ পাঠান, উপদেষ্টা সময় টিভির স্টাফ রির্পোটার ফারুক আহম্মদ, সহসভাপতি কামরুল হাসান সউদ ও সিকেডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক উজ্জল হোসাইন ও প্রতিযোগিতার বিচারক মোহাম্মদ হোসেন বক্তব্য রাখেন। ৎ

এছাড়া চাঁদপুর কন্ঠর ফরিদগঞ্জ উপজেলার বিশেষ প্রতিনিধি এম কে মানিক পাঠান, উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি এমরান হোসেন লিটন। সিকেডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাসেল হাসানের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন সিকেডিএফ ফরিদগঞ্জ কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ফরহাদ।

পরে বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষনা করেন সিকেডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক উজ্জল হোসাইন।

ফলাফলে কলেজ পর্যায়ে চ্যাম্পিয়র হয় বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ, রানার আপ কালির বাজার কলেজ, প্রাথমিক পর্যাায়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ইকরা মডেল মাদ্রাসা এন্ড একাডেমী, রানার আপ হয় বর্ণমালা কিন্ডারগার্টেন। মাধ্যমিক পর্যায়ে সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়ে শ্রেষ্ঠ হয় কালির বাজার মিজানুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, ২য় শ্রেষ্ঠ হয় বালিথুবা আ: হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়। এছাড়া মাধ্যমিক পর্যায়ে বিজয়ী দলগুলো হলো : ফরিদগঞ্জ এ আর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, কালির বাজার মিজানুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয় , শোল্লা স্কুল এন্ড কলেজ স্কুল শাখা, কেরোয়া আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়, বালিথুবা আ: হামিদ উচ্চ বিদ্যালয় ও পুর্ব বড়ালি শাহাজাহান কবির উচ্চ বিদ্যালয়।

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
216 জন পড়েছেন