বিয়ে না করেই মা হলেন অবিবাহিত একতা

0
745

বিনোদন ডেস্ক :

বলিউডের নামকরা নারী পরিচালক ও প্রযোজক একতা কাপুর। অভিনেতা তুষার কাপুরের বড়বোন তিনি এবং ষাট ও সত্তরের দশকের সুপারস্টার নায়ক জিতেন্দ্রর মেয়ে। চিনতে নিশ্চয়ই আর বাকি থাকার কথা না। সুন্দরী এই নারী প্রযোজকের বয়স ৪৩। কিন্তু এখনো বিয়ের নামগন্ধ নিচ্ছেন না। তবে সম্প্রতি হয়েছেন মা। গত ২৭ জানুয়ারি পৃথিবীর আলো দেখে তার পুত্র সন্তান।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

কিন্তু কীভাবে কী? উত্তর হচ্ছে, বিয়ে না হলেও মা-বাবা হওয়ার বিভিন্ন পদ্ধতি চালু রয়েছে প্রযুক্তির এই দুনিয়ায়। তারই একটা গ্রহণ করেছেন একতা কাপুর। অর্থাৎ সারোগেসির মাধ্যমে সন্তানের মা হয়েছেন তিনি। এর আগে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে একতাকে বলতে শোনা গেছে, আপাতত বিয়েতে রাজি নন তবে তার মা হওয়ার ইচ্ছা। সম্প্রতি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়ে সেই ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রযোজক।

এর আগে সারোগেসির মাধ্যমে পুত্র সন্তানের বাবা হন একতার ছোট ভাই অভিনেতা তুষার কাপুর। নাম লক্ষ্য। ভাই এবং ভাইপো- একতার কাছে দুজনই খুব আদরের। ইনস্টাগ্রামে ভাইপো লক্ষ্যকে নিয়ে তিনি মাঝেমধ্যেই ছবি শেয়ার করেন। সেই একতা সারোগেসির মাধ্যমে মা হওয়ার আইডিয়াটা নাকি ছোট ভাই তুষারের কাছ থেকে পেয়েছিলেন। তবে নিজের ছেলের নাম এখনো ঠিক করেননি প্রযোজক।

কর্মক্ষেত্রটাও খুব ভালো যাচ্ছে একতার। গত বছর মুক্তি পেয়েছিল তার দুই ছবি ‘ভিরে দে ওয়েডিং’ ও ‘লায়লা মজনু’। দুটিই বেশ ভালো ব্যবসা করেছে। চলতি বছরে আসছে তার চার ছবি। কঙ্গনা রানাওয়াত ও রাজকুমার রাও-য়ের ‘মেন্টাল হ্যায় কেয়া’, পরিনীতি চোপড়া ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রার ‘জবরিয়া জোড়ি’, ‘ভুমি পেডনেকর ও কঙ্কনা সেন শর্মার ‘ডলি কিটি অউর ও চমকতে সিতারে’ এবং আয়ুষ্মান খুরানা ও নুসরাত ভারুচারের ‘ড্রিম গার্ল’।

প্রকাশিত : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
287 জন পড়েছেন