৫ মাসে ২৫ মোবাইল উদ্ধারে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ

0
18

হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি :
হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন রনি গত ৫ মাসে প্রায় ২৫টি চোরাই মোবাইল সেট উদ্ধার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। যা অতীতের কোনো অফিসার ইনচার্জ এ ধরনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারেনি।

এ নিয়ে ভুক্তভোগীরা ওসি আলমগীর হোসেন-এর প্রশংসায় প্রঞ্চমুখ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

৩ ফেব্রুয়ারী রবিবার সর্বশেষ স্যামসাং জে সিরিজের দামি মোবাইল সেটটি ঢাকা থেকে উদ্ধার করে ভূক্তভোগীর হাতে তুলে দেন। নিজ কার্যালয়ে উপজেলার পূর্ব হাটিলা মৃত তৈয়ব আলী মোল্লার ছেলে আলমগীর হোসেনের হাতে উক্ত চুরি হয়ে যাওয়া সেটটি ২ মাস পর ফিরে পেয়ে ওসির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ মাস পূর্বে নবাগত অফিসার ইনচার্জ হিসাবে হাজীগঞ্জ থানায় যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে যতগুলো চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইল ফোনের জিডি থানায় পেয়েছেন প্রায় সবগুলো অত্যন্ত দৃঢ়তার সাথে তিনি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন। একের পর এক চুরি বা হারিয়ে যাওয়া মোবাইলের গ্রাহকরা অফিসার ইনচার্জের কার্যালয়ে ভিড় জমাতে থাকেন। পূর্বের ওসিদের সময়ে যেসব চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইলের জিডি রয়েছে সেগুলোর পদক্ষেপ নিয়ে ভূক্তভোগীদের হাতে তুলে দিয়েছেন। বর্তমানে তেমন কোন চুরি বা হারিয়ে যাওয়া কোন অপেক্ষমান জিডি থানায় নেই বলে জানা যায়।

তাছাড়া ওসি আলমগীর হোসেন প্রায় ২০ থেকে ২২ ঘন্টাই অফিস ও উপজেলার বাহিরে ডিউটি করে মাদক, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহসহ নানা অসামাজিক কর্মকান্ড প্রায় নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ওসি হিসাবে এখানেই আমার প্রথম কাজ করার সুযোগ হয়েছে। তাই আমি আমার কর্মকে মূলায়িত করে মানুষের পেছনে কাজ করে যাচ্ছি। যতদিন আছি উপজেলাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।

প্রকাশিত : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি.

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
124 জন পড়েছেন