নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে তরুণী গ্রেফতার

0
62

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে এক নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে ১৯ বছর বয়সী অপর এক তরুণীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ভুক্তভোগী নারীকে কৃত্রিম পুরুষাঙ্গ অর্থাৎ ‘সেক্স টয়’র মাধ্যমে ধর্ষণ করেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া ট্যুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ইন্ডিয়া ট্যুডের ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, গ্রেফতার ওই তরুণীর বিরুদ্ধে ভারতীয় ধর্ষণ সংক্রান্ত আইনে মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষণের শিকার ওই নারী। তিনি তার বক্তব্যে জানিয়েছেন, অভিযুক্ত তরুণী কোমরে বেল্ট বেঁধে তাতে কৃত্রিম পুরুষাঙ্গ লাগিয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

এমন ঘটনার পর ২৫ বছর বয়সী ওই নারী থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ প্রথমে মামলা নেয়নি। পুলিশের কাছ থেকে আইনি সহায়তা না পেয়ে তিনি জেলা আদালতে অভিযোগ দাখিল করেন। গ্রেফতারের পর পুলিশ ঘটনার তদন্তে রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ব্যবসায়িক অংশীদার করার লোভ দেখিয়ে অভিযুক্ত তরুণী ওই নারীর সঙ্গে বন্ধুত্ব করেন। তার ব্যবসায়ের আরও দুই অংশীদার রোহিত ও রাহুলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করান। তাদের সাহায্যে ও উপস্থিতিতে বেশ কয়েক বার ধর্ষণ করা হয় ওই নারীকে।

ধর্ষণের পর ওই নারীর পরিবারকে ২০ হাজার টাকাও পাঠায় ওই তরুণী। পূর্ব ভারতের বাসিন্দা ওই নারী মূলত কাজের খোঁজেই দিল্লি এসেছিলেন। ফলে তার পরিবার সেই টাকা সন্দেহ ছাড়াই গ্রহণ করেছিলো। গ্রেফতারের পর অভিযুক্ত ওই নারী এখন তিহারের একটা কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

প্রকাশিত: ০৭:৫১ পিএম, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
182 জন পড়েছেন