চাঁদপুরে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরি ধর্ষণ, আটক ১

0
74

মোঃ কামরুজ্জামান সেন্টু :
চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনায় মোঃ মাছুম রানা (২২) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার আটককৃতকে কোর্ট হাজতে ও কিশোরিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

থানা পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সূচীপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের শিমুলিয়া বেপারী বাড়ির দুলাল মিয়া কিশোরি কণ্যা’র (১৭) সাথে একই ইউনিয়নের কেশরাঙ্গা ভূঁইয়া বাড়ির মৃত জাকির হোসেন ভূঁইয়ার পুত্র মাছুম রানা ১ মাস পূর্বে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে। ওই যোগাযোগের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে কথাবার্তা এবং প্রেমের সম্পর্ক সৃষ্টি হয়। উভয়ের কথাবার্তা চলাকালীন মাছুম ওই কিশোরি কণ্যাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। গত ৪ ফেব্রুয়ারি সোমবার সন্ধ্যায় বিয়ের প্রলোভনে কিশোরিকে বাড়ি থেকে বের করে নেয়।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সন্ধ্যায় মাছুম নিজ ব্যবহৃত মোটর সাইকেল যোগে কিশোরিকে কেশরাঙ্গা ভূঁইয়া বাড়ির সম্মুখে নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। ওই সময় সে কিশোরিকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ওই কিশোরিকে রাস্তার উপর দাঁড় করিয়ে মাছুম আসিতেছে বলে চলে যায়।

কিশোরি দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে মাছুম ফিরে না আসায় তার বাড়িতে অবস্থান নেয়। কিশোরি মাছুমের বাড়িতে গেলে সে তাকে চিনে না এবং বিয়ে করবে না মর্মে অবহিত করে। কিশোরি লোক লজ্জার ভয়ে পাশ্ববর্তি পুকুরে লাফিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে কিশোরির পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের সংবাদ দিলে তারা তাকে উদ্ধার করে। সোমবার রাতেই কিশোরির মা মিনু বেগম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী-০৩) এর ৯ (১) ধারায় থানায় মামলা দায়ের করেন, যার নং-০৭। ওই দিন রাতেই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ কুতুব উদ্দিন খান লিয়ন, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) অর্জুণ রায় সঙ্গীয় ফোর্স আসামী মাছুম রানাকে কেশরাঙ্গা এলাকা হতে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, কিশোরির মায়ের মামলার প্রেক্ষিতে রাতেই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পরদিন (মঙ্গলবার) আসামীকে কোর্ট হাজতে এবং ভিকটিম কিশোরিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা তদন্তাধিন রয়েছে, তদন্ত পূর্বক পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

প্রকাশিত : ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি.

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
213 জন পড়েছেন