কার প্রতি এত ঘৃণা নিয়ে বিমান ছিনতাইয়ে গেলেন সিমলার স্বামী?

0
316

 

বিনোদন প্রতিবেদক
ঢাকা থেকে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের ‘ময়ূরপঙ্খী’ উড়োজাহাজ ছিনতাইকারী কথিত মাহাদীর পরিচয় মিলেছে। তার নাম মাহমুদ পলাশ বলে জানা গেছে। ২৪ বছর বয়সী পলাশের গ্রামের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা গ্রামে। তার স্ত্রী ঢাকাই চলচ্চিত্রে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সিমলা।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এদিকে র‌্যাব জানিয়েছে, পলাশ তালিকাভুক্ত অপরাধী। নিজেদের সংরক্ষিত ক্রিমিনাল ডাটাবেজ অনুযায়ী র‌্যাব দাবি করছে, নিহতের নাম পলাশ আহমেদ। তবে গতকাল পর্যন্ত তার নাম মাহাদী বলে জানা যাচ্ছিল।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

আর ফেসবুকে দেখা গেল তার আরেক নাম। মাহাবি জাহান নামে তিনি ফেসবুক ব্যবহার করতেন। সেই আইডিতে ঘুরে দেখা গেল সর্বশেষ আপডেটগুলো স্ত্রী সিমলাকে ঘিরে। তার সর্বশেষ স্ট্যাটাসটি ছিল, ‘ঘৃণা নিঃশ্বাসে প্রশ্বাসে।’ রোববার দুপুর ১টা ৩ মিনিটে স্ট্যাটাসটি দেন তিনি।

স্ট্যাটাসটি শেয়ার করছেন অনেকেই। প্রশ্ন তুলছেন, কার ওপর এত ঘৃণা পুষে রেখেছিলেন পলাশ? কী সেই ঘৃণা যার প্রতিক্রিয়ায় বিমান ছিনতাইয়ের মতো পাগলামি করতে গেলেন তিনি? নিহত পলাশের মুখ থেকে সেই উত্তর পাওয়া যাবে না কোনোদিন।

তবে ফেসবুকে পলাশের সর্বশেষ স্ট্যাটাসটি শেয়ার করে অনেকেই নায়িকা সিমলাকে এই ঘৃণার পাত্রী বলে দাবি করছেন।

বিমান ছিনতাইকারীর স্ত্রী নায়িকা সিমলা এখন কোথায়?

ঢাকা থেকে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের ‘ময়ূরপঙ্খী’ উড়োজাহাজ ছিনতাইকারী কথিত মাহাদীর পরিচয় মিলেছে। তার নাম মাহমুদ পলাশ বলে জানা গেছে। ২৪ বছর বয়সী পলাশের গ্রামের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা গ্রামে।

তার দ্বিতীয় স্ত্রী ঢাকাই চলচ্চিত্রে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সিমলা। রোববার সন্ধ্যায় বিমান ছিনতাইয়ের সময়ই জানা যায় পলাশের সঙ্গে সিমলার সম্পর্কের কথা।

তিনি নিজেই পুলিশকে বলেছিলেন, নায়িকা সিমলার প্রেমে ব্যর্থ হয়ে তিনি বিমান ছিনতাই করতে এসেছেন।

অবশেষে জানা গেল, সিমলা পলাশের দ্বিতীয় স্ত্রী। অনুমান করা হচ্ছে তাদের দাম্পত্যে ফাটল ধরেছিলো। হয়তো বিচ্ছেদও হয়ে গেছে আনুষ্ঠানিকভাবে। সেই বিচ্ছেদ হয়েছে সিমলার আগ্রহেই। সেটি মেনে নিতে পারেননি পলাশ। হতাশায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে তিনি বিমান ছিনতাইয়ের মতো কাণ্ড ঘটাতে চেয়েছেন।

তবে এই বিচ্ছেদের খবর জানেন না পলাশের পরিবারের সদস্যরা। কোনো তথ্য নেই সিমলার কাছের মানুষ ও চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের কাছেও। তাই সিমলাকে খুঁজছে সবাই। কিন্তু কোথায় সিমলা? যে নাম্বারে সবসময়ই পাওয়া যেত ‘ম্যাডাম ফুলি’ খ্যাত নায়িকা সিমলাকে সেই নাম্বারটি রয়েছে বন্ধ।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেল, তিনি দেশে নেই। বর্তমানে রয়েছেন ভারতের মুম্বাইয়ে। সেখানে মীরা রোড নামে এলাকায় অনেকদিন ধরেই বাস করছেন তিনি।

দশ বছরের বেশি সময় ধরে ক্যারিয়ারে ভাটা চলছে সিমলার। অনেকদিন হয় নতুন সিনেমাতে কাজ করেননি। সর্বশেষ তাকে দেখা যায় ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ নামের একটি ছবিতে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী একজন নায়িকা হয়ে ক্যারিয়ারের এই পতন হতাশায় নিমজ্জিত করেছে সিমলাকে। হয়তো সেই অভিমান মনে নিয়েই বিদেশে থিতু হওয়ার চেষ্টা করছেন তিনি।

পলাশের বাবা পি আর জাহানের দেয়া তথ্যে, প্রায় ১০ মাস আগে চিত্রনায়িকা সিমলাকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যায় পলাশ। বাবা-মায়ের সঙ্গে তার পরিচয় করিয়ে দেয়। এর এক-দেড় মাসের ব্যবধানে আরও দু’বার আসে পলাশ ও সিমলা। তারপর থেকেই পুত্রবধু সিমলার কোনো খবর জানেন না তিনি।

প্রকাশিত: ০৩:২৫ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
347 জন পড়েছেন