কুমিল্লায় প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় এনজিও কর্মকর্তা ধরা

0
186

জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা :
জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ পেয়ে কুমিল্লা নগরীর একটি আবাসিক হোটেল থেকে আপত্তিকর অবস্থায় প্রবাসীর স্ত্রীসহ মুন্সি মো. জুলহাস নামে এক এনজিও কর্মকর্তাকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার রাতে নগরীর শাসনগাছা এলাকার হোটেল ইশিতা থেকে আটকের পর শনিবার বিকেলে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) সালাহউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ পেয়ে ওই হোটেলে অভিযান পরিচালনা করা হয়। তাদের কাছে অভিযোগ রয়েছে, এরা প্রায় সময়ই এই হোটেলে আসতো এবং অসামাজিক কাজকর্ম করে নির্বিঘ্নে চলে যেতো।

ওইদিন সুনির্দিষ্টভাবে অভিযোগ পেয়ে তাদেরকে হাতেনাতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় আটক করা হয়।

এ সময় হোটেলের তৃতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে সাজেদা ফাউন্ডেশন নামক একটি এনজিওর সুপারভাইজার মুন্সি মো. জুলহাস এবং জেলার হোমনা পৌরসভার গোয়াইর ভাংগা এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানার এসআই শাওন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) সালাহউদ্দিন জানান, আটকদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আবাসিক হোটেলে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রকাশিত: ০২:১৭ পিএম, ১০ মার্চ ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
199 জন পড়েছেন