‘নৌকার সাথে বেঈমানীকারীরা স্বাধীনতার শত্রু’

0
21

শাহরাস্তিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনাসভা

‘নৌকার সাথে বেঈমানীকারীরা স্বাধীনতার শত্রু
বেঈমান আর মীরজাফরদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে’

———– মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মো. কামরুজ্জামান সেন্টু,
বিশেষ প্রতিনিধি :

স্বাধীনতা, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতীক নৌকা। যে নৌকাকে বুকে আঁকড়ে ধরে দেশ স্বাধীন হয়েছে, সেই নৌকার সাথে বেঈমানিকারীরা স্বাধীনতার শত্রæ। তারা ইতিহাস স্বীকৃত মীর জাফর ও মোস্তাকের চরিত্রে অবতির্ণ। সেই সকল বেঈমান, মীর জাফর ও মোস্তাকদের চিহ্নিত করে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। মুখে আওয়ামী লীগ ও নৌকা বুকে লালন করবেন অন্যকিছু এমনটা হতে দেয়া হবে না। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু নিজের জন্য নয় দেশের আপামর মানুষের কথা চিন্তা করে সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছেন। যার প্রতিফলন আজকে বাংলাদেশ বিশ^ দরবারে সম্মানের সহিত মাথা উঁচু করে পরিচয় দিতে সক্ষম হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশ সামগ্রিক ভাবে স্বয়ং সম্পূর্ণ। সাধারণ মানুষের মাঝে ৭০ এর মতো গণজোয়ার দেখা দিয়েছে। স্বার্থন্বেষী মহল এ গণজোয়ারে দিশেহারা হয়ে দেশের অমঙ্গলে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাদের কোন চক্রান্ত বাংলার মাটিতে সফল হবে না। এ দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর যোগ্য উত্তরসূরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বার বার ক্ষমতায় এনে তা প্রমাণ করেছে।

রোববার (১৭ মার্চ) বিকেলে শাহরাস্তির নিজমেহার মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অ্গংসংগঠনের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের ১নং সেক্টর কমান্ডার, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বুকে লালন করে আগামী প্রজন্মের কাছে তার জীবনী তুলে ধরতে হবে। আজকে প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুর সঠিক ইতিহাস হয়তো ভালো ভাবে জানে না। নতুন প্রজন্মের যুব সমাজ ও শিক্ষার্থীদের সঠিক ইতিহাস জানাতে হবে। তাহলে তারা সঠিক ভাবে জীবন গড়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার অংশিদারিত্ব করতে পারবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ফরিদ উল্যাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টুর সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ও হাজিগঞ্জ উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান গাজী মোঃ মাইনুদ্দিন, পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও পৌর মেয়র আলহাজ¦ আবদুল লতিফ, কেন্দ্রিয় যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদিকা নাছরিণ জাহান চৌধুরী শেফালী, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক আহবায়ক রেজাউল করিম মিন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য খিজির হায়দার, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আহসান মঞ্জুরুল ইসলাম জুয়েল, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ইমদাদুল হক মিলন।

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল মজুমদার, যুগ্ম সম্পাদক খোকন সরকার, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. ইলিয়াছ মিন্টু, উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক তোফায়েল আহমেদ ইরান, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক দর্জি, যুগ্ম আহবায়ক মাহফুজুল কবীর, যুবলীগ সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনির হোসেন, পৌর যুবলীগের আহবায়ক রেজাউল করিম বাবুল, যুগ্ম আহবায়ক শরীফুল ইসলাম হেলালী, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসেন সহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অ্গং সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

প্রকাশিত : ১৭ মার্চ ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, রোববার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
148 জন পড়েছেন