‘শিশুকাল থেকে মহানুভবতাই তাঁকে বঙ্গবন্ধু বানিয়েছে’

0
21

ফরিদগঞ্জে জাতির পিতার জন্মবার্ষিকীর আলোচনাসভায়

‘শিশুকাল থেকে মহানুভবতাই তাঁকে বঙ্গবন্ধু বানিয়েছে’

……. মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি

আনিছুর রহমান সুজন :
সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমান বলেছেন, ‘টুঙ্গিপাড়ার সেই দুরন্ত ছেলে খোকা শুধু সাহসীই ছিলেন না, ছিলের জনদরদী। মানুষের দুঃখ তিনি সইতে পারতেন না। তাইতো যখনই গ্রামে অভাবি লোকজন দেখতেন, নিজেদের ধানের গোলা থেকে অকাতরে ধান বিলিয়ে দিতেন। শিশুকাল থেকে তার এই মহানুভবতাই তাকে বঙ্গবন্ধু বানিয়েছে। তার সুনিপুন নেতৃত্বে আমরা বাংলাদেশ নামে একটি দেশ ও জাতি হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছি।’

৭ মার্চের তার ঐতিহাসিক ভাষণের কয়েকটি লাইনের কথা তিনি উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা যদি নিজেদের রাজনৈতিক জীবনে তার এই মূল্যবান ভাষণ চর্চা করি এবং অনুধাবন করতে পারি। তবেই আমরা একটি শান্তি ও সমৃদ্ধিময় বাংলাদেশ উপহার দিতে সক্ষম হবো।’

১৭ মার্চ ২০১৯ খ্রি. রোববার সকালে ফরিদগঞ্জ প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বলেন।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত উপজেলা নিবার্হী অফিসার মো. আলী আফরোজের সভাপতিত্বে ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শহিদ উল্যা তপদারের পরিচালনায় এসময় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র মাহফুজুল হক, ফরিদগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশিদ চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম কন্ট্রাক্টর, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মনির উজ্জামান, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান সউদ, যুব মহিলা লীগের সভাপতি সুলতানা রাজিয়া।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদন, বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টায় উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে র‌্যালী বের হয়। বীরমুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শফিকুর রহমানের নেতৃত্বে র‌্যালীটি উপজলা সদরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক শত শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। পরে দিবস উপলক্ষে আয়োজিত প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিরা।

প্রকাশিত : ১৭ মার্চ ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, রোববার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
155 জন পড়েছেন