রোগীর সাথে প্রতারণা করে ৪৯ বাচ্চার বাবা হয়েছেন এক ডাক্তার

0
158

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক
তার নাম জন কারবাট। পেশায় চিকিৎসক। নেদারল্যান্ডসের হেগ শহরে একটি আইভিএফ ক্লিনিক চালাতেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সন্তান পাওয়ার আকাঙ্খায় তার ক্লিনিকের শরণাপন্ন হতেন সন্তান ধারণে অক্ষম দম্পতিরা। কিন্ত সেখানে এক ধরনের জালিয়াতি করতেন তিনি।

ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন (আইভিএফ) পদ্ধতিতে টেস্টটিউবের মধ্যে দাতার শুক্রাণুর সাহায্যে ডিম্বাণুর নিষেক ঘটানো হয়।

নিজের ক্লিনিকে তিনি যখন এই পদ্ধতিতে নিষেক ঘটাতেন তখন দাতার শুক্রাণুর বদলে নিজের শুক্রাণু ব্যবহার করতেন।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

এভাবেই গত কয়েক বছরে ৪৯টি শিশু জন্ম নিয়েছে তার শুক্রাণু থেকে। সম্প্রতি তার ক্লিনিকে জন্মানো শিশুদের ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট সামনে আসতেই ফাঁস হয়েছে ওই চিকিৎসকের এমন জালিয়াতির কাহিনী।

আরও পড়ুন>> সিঙ্গাপুরে শিশু ধর্ষণ : বাংলাদেশির ২২ বছরের জেল

আইভিএফ বিতর্ক সামনে আসে এ গত ফেব্রুয়ারিতে। তারপরই কারবাটের ক্লিনিকে জন্মানো শিশুদের ডিএনএ টেস্ট করানোর নির্দেশ দেন আদালত।

গত শুক্রবার সেই ডিএনএ রিপোর্ট সামনে আসতেই গোটা বিষয়টি খোলাসা হয়েছে।

যদিও এত বড় জালিয়াতি করেও শাস্তি ভোগ করতে হবে না ওই ডাচ চিকিৎসককে।

কেননা ২০১৭ সালে ৮৯ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়। বর্তমানে সেই ক্লিনিকটিও বন্ধ রয়েছে।

প্রকাশিত: ০৭:৪২ পিএম, ১৩ এপ্রিল ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
170 জন পড়েছেন