ফরিদগঞ্জ শিশু অপহরণের ঘটনা নিয়ে নাটক

0
13

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসাপড়–য়া আট বছরের শিশু অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। যদিও থানা পুলিশ বলেছে এটি শিশুরা খেলাচ্ছলে করেছে। ঘটনাটি ঘটে উপজেলা পৌর এলাকার চরবসন্ত আজিজীয়া হাফেজিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসায় সোমবার ঘটে।

জানা গেছে, গত সোমবার রাতে চরবসন্ত আজিজীয়া হাফেজিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসার নাজরানা বিভাগের ছাত্র চরবসন্ত গ্রামের মুস্তফা কামালের ছেলে সিয়াম (৮) কে অপহরণ করে একই বিভাগের ছাত্র ও বালিথুবা পূর্ব ইউনিয়নের মানিকরাজ গ্রামের সফিকুর রহমান ছেলে মাহাবুব (১৫)।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সোমবার আসর নামাজ শেষে মাহাবুব তার সহপাঠী সিয়ামকে কৌশলে মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে কাঠের বাক্সে বেঁধে রাখে। কিছুক্ষণ পরে মুক্তিপণ চেয়ে মাদ্রসার হাফেজ মোজাম্মেল কাছে মাহাবুব একটি চিঠি দিয়ে বলে চিঠিটি সিএনজির চালক দিয়েছে আপনাকে দেওয়া জন্য। চিঠিতে ৫০ হাজার টাকা ও একটি ট্যাব মোবাইল ফোন দাবি করেন অপহরণকারী। চিঠিতে আরো লেখা ছিল কাল সকালের ভিতরে টাকা ও মোবাইল ফোন না দিলে সিয়ামকে প্রাণে মেরে ফেলা হবে ।

মাদ্রাসার হাফেজ মোজাম্মেল চিঠিটি স্থানীয় লোকজনের সিয়ামের পরিবারে কাছে পাঠায় দেয়। পরে সিয়ামের পরিবার চিঠির আলোকে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতা চায়। থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিলে পুলিশ আসার কথা শুনে ভয় পেয়ে মাহাবুব সিয়ামকে মাদ্রাসার পিছন দিয়ে সুপারি গাছ দিয়ে নামিয়ে দেয় এবং কাউকে কিছু না বলার বলে দেয়। সিয়াম তার পরিবারের কাছে সকল ঘটনা বলার পরে অপহরণকারী মাহাবুব কে আটক করে রাখে মাদ্রাসায়।

এবিষয়ে অপহরণকারী মাহাবুব বলেন, সিয়াম আমার বিরুদ্ধে হুজুরের কাছে বিভিন্ন অভিযোগ করে তাই আমি তাকে আটক করে রাখি। চিঠির বিষয়ে স্বীকার করে বলেন, এটা আমি লিখেছি।

অপহরনকারীর চাচা শহিদুল্যাহ বলেন, আমার ভাতিজা কেন এই কাজ করেছে, বুঝতে পারছি না। তবে সে মানসিক রোগে আক্রান্ত।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসার সহ-সুপার কাছে জুলফার হোসেন ফোনে বলেন, আমি ঐখানে ছিলাম না, আমি শুনে খুব হতাশ হয়ে গিয়েছি। আমরা তার পরিবারে সাথে কথা বলছি। এবং ছেলেটা মানুষিক ভাবে একটু অসুস্থ আবস্থায় আছে। কি করবো বুঝে উঠতে পারি না।

এবিষয়ে মাদ্রাসার সভাপতি হাবিব উল্যাকে ফোন দিলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

ফরিদগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুর রকিব বলেন, শিশু দুইটি খেলার ছলে এই ঘটনা করেছে, আমাদের কাছে এরকম তথ্য এসেছে।

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার : ০৫:৪৫ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
111 জন পড়েছেন