সাবেক তিন কূটনীতিককে সম্মাননা

0
11

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্কঃ
১৯৭১ সালে সরকারি চাকরি ছেড়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া সাবেক তিন কূটনীতিককে সম্মাননা দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন, আমজাদুল হক, আনোয়ারুল করিম চৌধুরী ও হোসেন আলী।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর হেয়ার রোডের ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ‘ফরেন সার্ভিস ডে’ উদযাপন অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।
ওই সময় উপস্থিত ছিলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ফারুক খান।
আমজাদুল হকের পক্ষে সম্মাননা গ্রহণ করেন তার ছেলে ফারুক শামস, আনোয়ারুল করিম চৌধুরীর পক্ষে তার বন্ধু এএসএম মুইজ সুজন ও হোসেন আলীর পক্ষে হাবীব উল্লাহ হাবীব।
সম্মাননা দেওয়ার পর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে গণহত্যা কর্নার উদ্বোধন করা হয়।
ওই সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা গণহত্যা দিবসের স্বীকৃতি আদায়ের জন্য কাজ শুরু করেছি। বাংলাদেশের বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গণহত্যা হয়েছে। ১৯৭১ সালে যেসব সরকারি কর্মকর্তা পদত্যাগ করে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন তাদের মধ্যে তিনজনকে সম্মাননা দিতে পেরে আমরা আনন্দিত।
১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল আনুষ্ঠানিক ভাবে মুজিবনগর সরকার গঠন করে। সেই সরকারকে অনুসরণ করে ভারতে পাকিস্তান হাইকমিশনকে পরিবর্তন করে বাংলাদেশ কূটনৈতিক কমিশন ঘোষণা করেন ডেপুটি হাইকমিশনার হোসেন আলী ও থার্ড সেক্রেটারি আনোয়ারুল আলম চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম।
গণহত্যা কর্নারে মতামত বইয়ে স্বাক্ষর শেষে সাবেক কূটনীতিক ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর আমরা একটি স্বাধীনতা পেয়েছি। এ স্বাধীনতা যুদ্ধের নেতৃত্বে ছিলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের মত অবিসংবাদিত নেতা।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি ফরেন সার্ভিসে একাডেমিতে গণহত্যা কর্নার উদ্বোধন নিঃসন্দেহ একটি ভালো উদ্যোগ।
অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রকাশিত : ১৯ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
98 জন পড়েছেন