কুষ্টিয়ায় দেবরের হাতে ধর্ষণের শিকার ভাবি

0
1255
প্রতীকী ছবি

 

জেলা প্রতিনিধি কুষ্টিয়া :
কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের বোয়ালদহ ইউনিয়নে দেবরের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ভাবি। এ ঘটনার পর বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে দেবর।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

পুলিশ জানায়, রোববার সকালে ভাবি নিজের ঘর গোছানোর কাজ করছিল। এ সময় চাচাতো দেবর কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের বোয়ালদহ এলাকার পান্নার ছেলে সুমন বাড়ির ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয়।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

একপর্যায়ে মুখ চেপে ধরে ভাবিকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় সুমন। পরে ধর্ষণের শিকার ভাবি ঘর থেকে বের হয়ে এসে শ্বশুরকে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে এসে বিষয়টি জেনে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অভিযোগ দেন। পরে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ওই গৃহবধূকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বলেন, রোববার সকালে আমি ঘর গোছানোর কাজ করছিলাম। এ সময় সুমন আমার ঘরে ঢুকে মুখ চেপে ধরে পায়জামা ছিঁড়ে ফেলে। পরে আমাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এর আগেও সুমন আমার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছিল। তখন পা ধরে মাফ চাওয়ায় সুমনকে ক্ষমা করে দেয়া হয়।

এলাকাবাসী জানান, সুমন কুষ্টিয়া শহরের একটি ফার্মেসিতে সেলসম্যানের কাজ করে। সুমন একজন মাদকসেবী। এর আগেও ওই গৃহবধূর শ্লীলতাহানি করেছে সুমন।

কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ওসি নাসির উদ্দিন বলেন, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর স্বামী থানায় এসে অভিযোগ দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ধর্ষক সুমনকে ধরতে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি আমরা।

প্রকাশিত: ০৮:৫৭ পিএম, ২৮ এপ্রিল ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
614 জন পড়েছেন