‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’ -এর উদ্বোধন

এন এ রবিউল হাসান লিটন, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ
পঞ্চগড়-ঢাকা ট্রেন যোগাযোগের এক নতুন মাত্রা যুক্ত হল ‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’। বিরতিহীন এ ট্রেন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
২৫ মে (শনিবার) দুপুরে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি ট্রেনটির উদ্বোধন করেন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলস্টেশনে পঞ্চগড়ে উপস্থিত ছিলেন, রেলপথ মন্ত্রী অ্যাড. মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন।
ওই সময় উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ মাজহারুল হক প্রধান, পঞ্চগড়-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য নাজমুল হক প্রধান, জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সর্বস্তরের জনগণ।
পঞ্চগড় রেলওয়ে স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে নতুন নামকরণ করা হয়েছে সাবেক সংসদ সদস্য, উত্তর বঙ্গের রয়েল বেঙ্গল ক্ষেত বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলস্টেশন পঞ্চগড়।
রাজধানী ঢাকা-পঞ্চগড় রেলপথে প্রথমবারের মতো দ্রুতগতির পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি ৫৯৩ কি.মি পথ পাড়ি দিয়ে ঢাকা পৌঁছাতে সময় লাগবে মাত্র ১০ ঘণ্টা। সময়সূচি অনুযায়ী ট্রেনটি পঞ্চগড় থেকে দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে ঢাকা পৌঁছাবে রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে, আবার ঢাকা থেকে রাত ১২টা ১০ মিনিটে ছেড়ে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে পঞ্চগড় পৌঁছাবে। যাত্রাপথে ট্রেনটি পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, পার্বতিপুর এবং বিমানবন্দর স্টেশনে যাত্রা বিরতি করেই বিরতিহীন ভাবে চলাচল করবে।
উল্লেখ্য, দীর্ঘতম এই রেলপথে দ্রতগতির আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেন চালু হলে পঞ্চগড়ের সঙ্গে রাজধানীর যাতায়াতে সময় কম লাগবে। তাছাড়া ব্যবসা বানিজ্যের প্রসারসহ পঞ্চগড়ের চা, ভূগর্ভস্থ নুড়ি পাথর, উৎপাদিত কৃষিপণ্য পরিবহন বাড়বে। এছাড়া বিরল ও বাংলাবান্ধা স্থল বন্দরের মাধ্যমে আমদানি-রপ্তানি সহজতরসহ পর্যটন খাত ব্যাপক প্রসার লাভ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৬ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

337 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়