rap 3

প্রেমে রাজি না হওয়ায় মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া

বগুড়ার শেরপুরে প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা শেরপুর থানায় দুজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন।

আসামিরা হলো- জামাল শেখ (১৬) ও শাহ জামাল (২৮)। মামলার পর অভিযান চালিয়ে জামাল শেখকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

Night King Sex Update
নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শেরপুরের ভবানীপুর দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেণির ছাত্র মো. জামাল শেখ দীর্ঘদিন ধরে অন্য মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু তার প্রস্তাবে রাজি হয়নি ওই ছাত্রী।

গত সোমবার রাতে ওই ছাত্রী টিউবওয়েলে অজু করতে গেলে সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা জামাল শেখ ও তার সহযোগী শাহ জামাল তাকে মুখ চেপে ধরে পাশের একটি সবজি ক্ষেতে নিয়ে যায়। এরপর সেখানে জামাল শেখ ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে এবং বিষয়টি যাতে জানাজানি না হয় সেজন্য হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

পরে ওই ছাত্রী বাড়িতে ফিরে তার মাকে বিষয়টি খুলে বললে পরিবারের লোকজন পরের দিন মঙ্গলবার স্থানীয় ইউপি সদস্য শামীমকে জানায়। পরে ইউপি সদস্য তাদের আইনের আশ্রয় নিতে বলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে শেরপুর থানায় মো. জামাল শেখ ও শাহ জামালের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন।

এ বিষয়ে শেরপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মো. বুলবুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত জামাল শেখকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ৩১ মে ২০১৯

 49 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন