সাতক্ষীরায় আটক ১৩ জনকে পাঠানো হলো মানসিক হাসপাতালে

0
32

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :
সাতক্ষীরায় ‘ছেলে ধরা রোহিঙ্গা’ সন্দেহে আটক মানসিক ভারসাম্যহীন ১৩ জনকে পাবনা মানসিক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (১২ মে) তাদের সাতক্ষীরা বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করলে বিচারক তাদের উন্মাদ আইনে মানসিক হাসপাতালে পাঠানোর আদেশ দেন।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।
http://picasion.com/

জানা যায়, সেখানে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর মস্তিষ্ক বিকৃতির কোনো লক্ষণ পাওয়া গেলে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হবে। অন্যথায় ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে জেলার কালিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান বলেন, রোহিঙ্গা ছেলে ধরা সন্দেহে ১৩ জনকে এলাকার লোকজন গত কয়েক দিনে বিভিন্ন জায়গা থেকে আটক করে পুলিশে দেয়। কিন্তু তারা কেউ রোহিঙ্গা নন, এমনকি কোনো অপরাধীও নন।

তিনি আরও বলেন, অসংলগ্ন কথাবার্তা বলায় তাদের সাতক্ষীরার বিচারিক আদালতে তোলা হয়। পরে আদালত ১৩ জনকে পাবনা মানসিক হাসপাতালে পাঠানোর আদেশ দেন।

সম্প্রতি সাতক্ষীরায় ‘ছেলে ধরা রোহিঙ্গা’ ঘুরছে বলে ব্যাপক গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এতে বিভ্রান্ত হয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ দেখলেই তাদের আটক করে মারধর করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
281 জন পড়েছেন
http://picasion.com/