সোনাগাজীর সেই ওসির বিরুদ্ধে সাংবাদিক সজলের জিডি

0
16

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্কঃ
‘মিথ্যাচার’ করে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করায় সোনাগাজী থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় পাল্টা জিডি করেছেন স্থানীয় সাংবাদিক আতিয়ার সজল।
বৃহস্পতিবার (০২ মে) দুপুরে তার জিডিটি (নম্বর: ৬৮) রেকর্ড করা হয়। এ সময় ফেনী প্রেসক্লাবের নেতারা ছাড়াও স্থানীয় সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।
ফেনীর আলোচিত নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় গত ৯ এপ্রিল সোনাগাজী মডেল থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়। এরপর গত ১৪ এপ্রিল সোনাগাজী মডেল থানায় একটি জিডি (নম্বর: ৫৬৭) করেন।
জিডির একটি অংশে বলা হয়, ‘‘গত ০৬ এপ্রিল নুসরাত জাহান রাফির শরীরে আগুন দেয়ার ঘটনার পর থেকে অনেক সাংবাদিকসহ আরও বহিরাগত লোকজন থানায় আসেন এবং তার রুমে অনেকে আসা যাওয়া করেন। তিনি তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন টেবিলে রেখে মাঝে মধ্যে ওয়াশ রুমে যাওয়াসহ মসজিদে নামাজ পড়তে যান। গত ৮ এপ্রিল সজল ওই সুযোগে তার অজ্ঞাতসারে তাকে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করাসহ অন্যায় লাভের আশায় তার মোবাইলে ধারণ করা ভিডিওটি ‘শেয়ার ইট’ এর মাধ্যমে তার অনুমতি ব্যাতিরেকে স্থানান্তর করে নিয়ে যান। এটি তিনি তার মোবাইল হিস্ট্রির পর্যালোচনায় জানতে পারেন। পরবর্তীতে ওই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।’’
এদিকে আতিয়ার সজল তার জিডি উল্লেখ করেন, ‘গত ৬ এপ্রিল নুসরাতের গায়ে আগুন দেয়ার পর তৎকালীন সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনাটিকে গণমাধ্যমসহ সকলের কাছে আত্মহত্যার চেষ্টা বলে প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া ছিলেন। এই ধারাবাহিকতায় ৮ এপ্রিল আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে ১টার মধ্যে তিনিসহ একাধিক গণমাধ্যম কর্মী তার বক্তব্যের জন্য সোনাগাজী মডেল থানায় যান।’
‘ভিডিওতে ওসির বক্তব্য ধারণের আগে তিনি জানান, তার কাছে ২৭ এপ্রিল তারই রেকর্ড করা নুসরাত জাহান রাফির দুইটি জবানবন্দির ভিডিও ফাইল রয়েছে। সেটা দেখলেই বুঝা যাবে নুসরাতের মনে আগে থেকেই আত্মহত্যা করার প্রবণতা তৈরি হয়েছিল। সজল ভিডিও ফাইল দুইটি তার কাছে সম্প্রচারের জন্য চাইলে তিনি স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে অতি উৎসাহী হয়ে নিজেই আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে স্থানান্তর করেন। এসময় উপস্থিত বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মীদেরও তিনি ভিডিও ফাইল দুইটি দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন।’

প্রকাশিত : ০২ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
101 জন পড়েছেন