নারীসহ প্রতারক চক্রের তিন সদস্য আটক

0
53

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের বাইরে পথশিশুদের সাহায্যের নামে অর্থ সংগ্রহ করার নামে প্রতারণার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাতে আটক হয়েছেন এক নারীসহ তিনজন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

এ সময় তারা নিজেদের শিক্ষার্থী বলে দাবি করেন।

আটককৃতদের মধ্যে মুহাম্মাদ হাসান (২৩) সরকারি বাঙলা কলেজের বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী, অমিত সরকার দু’বছর আগে খিলগাঁও মডেল কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে এবং ওই নারী ডেইরী ফার্ম স্কুলের (উন্মুক্ত) নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বলে জানায় তারা।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার দুপুর ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের (ডেইরি গেট) বাইরে ‘মনি মুক্তা স্বেচ্ছাসেবক ফাউন্ডেশন’ এর নামে পথ শিশুদের সাহায্য করার উদ্দেশ্যে টাকা সংগ্রহের সময় শিক্ষার্থীরা তাদের আটক করে। টাকা সংগ্রহ ও ফাউন্ডেশনের পরিচয় পত্র কিংবা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখতে চাইলে তারা দেখাতে ব্যর্থ হয়। খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার কর্মকর্তারা তাদেরকে নিরাপত্তা অফিসে নিয়ে যান।

আটককৃতরা জানান ‘মনি মুক্তা ফাউন্ডেশন’ এর পরিচালক মাহমুদ মুক্তার তাদেরকে এই কাজে পাঠিয়েছেন। এছাড়া তারা আর কিছুই জানেন না। এ সময় তাদের কাছে মনি মুক্তা ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাহমুদ মুক্তার এবং স্বপ্নের পথিক ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফা জামান মিথির নাম ও মোবাইল নম্বর সম্বলিত একটি কম্পিউটার কম্পোজ করা কাগজ পাওয়া যায়।

এই বিষয়ে কথা বলেতে মাহমুদ মুক্তাররে সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করেন এবং ফোন বন্ধ করে রাখেন।

আরিফা জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনিও বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, আমি আমাদের ফাউন্ডেশনের নামে কাউকে অর্থ সংগ্রহ কিংবা এ ধরনের কোন কাজে পাঠাইনি।

আটকৃতরা জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে আমাদেরকে গতকাল রাজধানীর তিতুমীর কলেজে ডেকে মাহমুদ মুক্তার এই কাজ দিয়েছেন। রাতে আমাদের হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে এই কাগজ পাঠানো হয় এবং অর্থ সংগ্রহ করতে বলা হয়। বিনিময়ে আমাদেরকে আগমীকাল টাকা, খাবার ও পোশাক দেওয়া হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহিন বলেন, যেহেতু তারা বহিরাগত তাই আমাদের প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষ করে তাদেরকে সন্ধ্যা ৭ টার দিকে পুলিশে সোপর্দ করেছি।

প্রকাশিত : ০৫ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, রোববার : ০২:৩৬ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
110 জন পড়েছেন