সাভারে মা মেয়েসহ ৩ নারীকে ধর্ষণ করল ভণ্ড পীর

0
411

 

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :
সাভারের আশুলিয়ায় একই পরিবারের মা, মেয়েসহ ৩ নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ভণ্ড পীরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ভুক্তভোগী নারীদের মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী এক নারী বাদী হয়ে ভণ্ড পীর ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন : হাকীম মিজানুর রহমান, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01742057854, +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

সোমবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ এ তথ্য নিশ্চিত করে। পরে তাকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

এর আগে রোববার রাতে ভণ্ড পীর মো. মনির হোসেনকে আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার আস্তানা থেকে ওই তিন নারীকে উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার মনির হোসেন আশুলিয়ার কুরগাঁও এলাকার মৃত আব্দুল রহিমের ছেলে।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে বড় বোনকে ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে মুরিদ বানিয়ে ধর্ষণ করে আসছিল ওই ভণ্ড পীর। পরে তার ছোট বোনকে একই কৌশলে ধর্ষণ করে। এরপর সে বড় বোনের কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণ শুরু করে। পরে আস্তানা থেকে গোপনে বের হয়ে ছোটবোন আশুলিয়া থানায় অভিযোগ জানালে অভিযান চালিয়ে ভণ্ড পীরকে গ্রেফতার করা হয়।

ভণ্ড ওই পীর তার নিজ বাড়িতে আস্তানা তৈরি করে আরও একাধিক নারীকে ধর্ষণ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় মকবুল নামে তার এক সহযোগী পালাতক রয়েছে।

প্রকাশিত : ০৬ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার : ০৩:০৭ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
206 জন পড়েছেন