ফারজানার জীবনের দাম ২৫ হাজার টাকা

0
309

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মাত্র ২৫ হাজার টাকা যৌতুক না পেয়ে বাল্যবিয়ের শিকার এক কিশোরীকে নির্যাতনের পর গলা টিপে হত্যা করেছে স্বামী।

নিহত ফারজানার (১৫) একমাস আগে বিয়ে হয় এবং ১৫ দিন আগে স্বামীর বাড়িতে আসে। সোমবার (১৩ মে) সকালে স্বামীর বাড়ির পার্শ্বে বাঁশঝাড়ে ফারজানার মরদেহ পাওয়া যায়।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

জানা গেছে, নন্দীগ্রাম উপজেলার থালতা মাঝগ্রাম ইউনিয়নের আগাপুর গ্রামের দিনমজুর আবুল কালামের কিশোরী মেয়ে ফারজানার এক মাস আগে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী পারশুন গ্রামের মঞ্জুরুল ইসলামের ছেলে দিনমজুর রকি হোসেনের সাথে। বিয়ের সময় ২৫ হাজার টাকা যৌতুক দেওয়ার কথা থাকলেও ফারজানার বাবা পরিশোধ করতে পারেনি। এক বছর পর যৌতুকের টাকা দেবে মর্মে ১৫ দিন আগে মেয়েকে স্বামীর বাড়িতে রেখে যায়। সোমবার সকালে স্বামীর বাড়ির পার্শ্বে বাঁশঝাড়ে ড্রেনের মধ্যে ফারজানার মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় প্রতিবেশীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে আসার আগেই স্বামী রকি হোসেন পালিয়ে যায়।

নিহত ফারজানার বাবা আবুল কালাম বলেন, রকি তার প্রথম স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার পর ফারজানাকে বিয়ে করে। বিয়ের সময় কথা হয় যৌতুকের ২৫ হাজার টাকা এক বছর পর দেওয়ার। কিন্তু ফারজানা স্বামীর বাড়ি যাওয়ার পর ঈদের আগেই টাকা দাবি করে আসছিল রকি। তিনি বলেন, যৌতুকের টাকা না পেয়েই ফারজানাকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। তবে প্রতিবেশীরা বলেছেন, ফারজানা স্বামীর বাড়িতে আসার পর থেকেই পরকীয়া নিয়ে স্বামীর সাথে কলহ দেখা দেয়।

কুমিড়া পন্ডিতপুকুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই নূর মোহাম্মদ বলেন, নিহতের গলায় ও গালে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে গলা টিপে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হতে পারে।

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার : ০২:১১ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
173 জন পড়েছেন