উত্তরখানে তিন মরদেহঃ দুইজনকে হত্যার পর একজনের আত্মহত্যা

0
5

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্কঃ
রাজধানীর উত্তরখানের ময়নারটেকে উদ্ধার হওয়া একই পরিবারের তিন মরদেহের প্রাথমিক তদন্তে যেকোনো একজন দুইজনকে হত্যার পরে নিজেই আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
বুধবার (১৫ মে) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানান ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ।
তিনি বলেন, ময়না তদন্তের পর যে আলামত পেয়েছি, সেগুলো কনফার্ম করার জন্য ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক বোর্ড সিন ক্রাইম ভিজিট করেছি। সেখানে অনেক ইনফরমেশন পাওয়া গেছে। বাড়ির দরজা ভেতর দিয়ে আটকানো ছিলো এবং পুলিশ তা ভেঙে ভেতরে ঢুকেছিলো সেটা কনফার্ম হয়েছি। এরপর ভেতরে ডাইনিং রুমের ফ্লোরে রক্ত পাওয়া গেছে। যার ওপরে কিছু মাছি মরে পড়ে ছিলো। ডাইনিং টেবিলে একটি কীটনাশকের খালি বোতল পাওয়া গেছে। এছাড়া এক পাতা ঘুমের ওষুধ পাওয়া গেছে, যার মধ্যে দু’টি ট্যাবলেট অবশিষ্ট ছিলো। বাকি ৮ টি ট্যাবলেট ছিলো না।
এছাড়া যে রুমে মা ও মেয়ের মরদেহ পাওয়া গেছে, সেই বিছানায় রক্ত এবং ফ্লোরে কিছু বমি পাওয়া গেছে। এছাড়া থানায় রাখা বটি ও দু’টি ছুরি থেকে রক্ত সংগ্রহ করা হয়েছে। আর তাতে কারও আঙুলের চিহ্ন আছে কি-না এবং রক্ত, বমিসহ সব আলামত সিআইডি ফরেনসিক ল্যাবে পরীক্ষায় জন্য পাঠানো হয়েছে। ছেলের গলার কাটা চিহ্নটা আত্মহত্যার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। তবে দরজা ভেতর থেকে বন্ধ, বিষের বোতল পাওয়া সব মিলিয়ে আত্মহত্যাই মনে হচ্ছে।
তবে রিপোর্টে যদি মায়ের শরীরে বিষের আলামত পাওয়া যায়, তাহলে বলা যাবে মা নিজে মেয়ে-ছেলেকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন। আর তা না পাওয়া গেলে তাহলে বলা যাবে, ছেলেই মা-বোনকে হত্যা করে এমনটা করেছেন।
উত্তরখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে মুহিব হাসানের মামা মনিরুল হক বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।
তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক তদন্তে এটাই প্রতীয়মান হচ্ছে যে তিনজনের মধ্যে কেউ দুইজনকে হত্যার পরে নিজেই আত্মহত্যা করেছে।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
34 জন পড়েছেন