মতলব উত্তরে হামলায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ গুরুতর আহত

0
38

মতলব উত্তর প্রতিনিধি :
মতলব উত্তর উপজেলার এখলাছপুরে মেয়ের শ^শুর বাড়িতে (বেয়াই) অতর্কিত হামলায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। ৮ মে রাত সাড়ে ৯টায় এখলাছপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নুরুল ইসলামের স্ত্রী ইয়াছমিন বেগম বাদি হয়ে মতলব উত্তর থানায় এখলাছপুর গ্রামের আবদুল আউয়াল ছৈয়ালের ছেলে আবুল কালাম (৫৯), আবুল কালামের স্ত্রী নাজমা বেগম (৫৫), আবদুল আউয়ালের ছেলে ইলিয়াছ (৩৫), বাবু মিয়া (৩৫), রবিউল (৩০) ও আবুল কালামের মেয়ে ছামিয়া (১৯) সহ অজ্ঞাত ৫-৬জনকে বিবাদি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নুরুল ইসলামের ছেলে শাহাদাত হোসেনের সাথে প্রেমের সম্পর্কে আবুল কালামের মেয়ে ছামিয়া পরিবারের সদস্যদের অগোচরে রেজিস্ট্রি করে এক বছর পূর্বে বিয়ে করেন। এক বছর ঢাকার গাজিপুরে স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস করে আসছিল। ২ মাস পূর্বে ছামিয়া তার বাবার সাথে এখলাছপুর বেড়াতে আসে। ৮ মে শাহাদাত স্ত্রী ছামিয়াকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে।

এ ঘটনার পর ছামিয়ার বাবা, ভাইসহ আত্মীয়রা শাহাদাতের স্ত্রী ছামিয়াকে জোরপূর্বক নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে বাঁধা দিলে তারা লাঠি সোটা নিয়ে বে-আইনী ভাবে হামলা করে। ওই হামলায় তাছলিমা আক্তারের (অন্তঃসত্বা) পেটে লাথি মেরে আহত করে। হামলাকারীরা স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ অর্থ লুট করে নিয়ে যায়। বসত ঘর ও আসবাবপত্র ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে। আহত তাছলিমাকে প্রথমে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ব্যাপারে ইয়াছমিন বেগম বাদি হয়ে মতলব উত্তর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

প্রকাশিত : ১৫ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
85 জন পড়েছেন