কোটি টাকার দুষ্প্রাপ্য জিনিস দুই কৃষক বেচলেন পানির দরে

0
631

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

যৌন ক্ষমতা বাড়ানোর ওষুধ হিসেবে জিনসেং মূলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে সারাবিশ্বে। যৌন উত্তেজনা বাড়াতে জিনসেং মূলের জুড়ি মেলা ভার। জঙ্গলে কাঠ কাটতে গিয়ে সেই মূল খুঁজে পান দুই কৃষক।

জঙ্গলের মধ্যে থেকে পাওয়া ওই জিনসেং মূলটির ওজন প্রায় একশ ১৩ কেজি। বিশাল আকৃতির সেই মূলের ওষুধিগুণ সম্পর্কে জানা থাকলেও বিশ্ব বাজারে মূলটির দাম সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না ওই দুই কৃষকের।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

স্থানীয় বাজারে ৫৪ হাজার টাকায় ওই দুই কৃষকের কাছ থেকে মূলটি কিনে চান এক ব্যবসায়ী। মূলটির এত দাম পাওয়া যাবে, সেটা স্বপ্নেও ভাবেননি তারা।

ফলে তৎক্ষণাৎ রাজি হয়ে যান ওই দুই কৃষক। নগদ টাকা হাতে পেয়ে খুশিতে নাচতে নাচতে বাড়ি ফিরে যান তারা। দুই পরিবারে তখন উত্সবের আমেজ। খুশিতে দিশেহারা ওই দুই কৃষক ও তাদের স্বজনরা।

এদিকে জিনসেং মূলটি ওই ব্যবসায়ী শহরের এক ভেষজ জড়িবুটির বড় আড়তদারকে প্রায় চার লাখ ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। গল্প অবশ্য এখানেই থেমে থাকেনি। দৈত্যাকার ওই মূলটি বেচে দেন ওই আড়তদারও। তিনি ওই জিনসেং মূলটি শহরের এক বিত্তবান ওষুধ নির্মাতা সংস্থার মালিকের হাতে তুলে দেন প্রায় দুই কোটি ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে চীনের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের সিচুয়ান প্রদেশের গুয়াং ডনের পাশের একটি গ্রামে। গ্রামের ওই দুই কৃষকের নাম লিপং এবং পিনিং। বিপুল অঙ্কের বিনিময়ে একশ ১৩ কেজি ওজনের দৈত্যাকার ওই জিনসেং মূলটি যে ব্যক্তি কিনেছেন, তিনি এটি থেকে আরো লাভ করবেন।

যে আড়তদার চার লাখ ৯০ হাজার টাকায় মূলটি কিনেছেন, তিনিও দুই কোটি পাঁচ লাখ ১০ হাজার টাকা লাভ করেছেন। গুয়াং ডনের ওই স্থানীয় ব্যবসায়ীও প্রায় চার লাখ ৩৬ হাজার টাকা রাতারাতি লাভ করেছেন।

এদিকে লিপং আর পিনিং হয়তো আক্ষেপে বুক চাপড়াচ্ছেন। কোটি কোটি টাকার দুষ্প্রাপ্য জিনসেং মূলের মূল্য না জেনে তারা যে পানির দরে বেচে দিয়েছেন। আক্ষেপ হওয়াটাই তো স্বাভাবিক।

প্রকাশিত : ২৯ মে ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার : ১২:০৯ পিএম

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
177 জন পড়েছেন